জীবন বাজি রেখে নবজাতক-প্রসূতিদের বাঁচালেন ট্রাফিক সার্জেন্ট

নিউজটি শেয়ার করুন

ভারতের কলকাতার ডায়মন্ড হারবার রোডের ডায়মন্ড ভিউ নার্সিংহোমের মেইন গেটে শনিবার সকাল সাড়ে ১১ টা নাগাদ হঠাৎ আগুন লাগে। নার্সিংহোমের পাশে রাইস কোচিং সেন্টারের ক্লাসও চলছিল সে সময়। আগুন ছড়িয়ে পড়ে সেখানেও।

কলকাতা পুলিশ তাদের ফেসবুক পেজে এক পোস্টে জানিয়েছে, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান ডায়মন্ড হারবার ট্রাফিক গার্ডের কর্তব্যরত সার্জেন্ট কৃষ্ণ দাস। নার্সিং হোমের ভেতরে তখন আটকে ছিলেন আগের রাতে জন্ম নেওয়া বেশ কয়েকজন শিশু আর তাদের মায়েরা। এছাড়া, কোচিং সেন্টারেও আটকে ছিলেন ছাত্রছাত্রীরা। যে কোনোভাবে তাদের বিপদমুক্ত করাই ছিলো প্রথম কাজ।

অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র দিয়ে বিল্ডিং-এ প্রবেশপথের আগুন কোনো মতে নেভান সার্জেন্ট কৃষ্ণ দাস। তারপর ঢুকে পড়েন ভেতরে। একে একে উদ্ধার করে নিরাপদে নার্সিং হোমের বাইরে নিয়ে আসেন সদ্যোজাত আটজন শিশু-সহ সবাইকে। অগ্নিকাণ্ডের আতঙ্ক তখনো লেগে ছিল সদ্যপ্রসূতিদের চোখে-মুখে।

স্থানীয় গ্যারেজে যোগাযোগ করে দ্রুত কয়েকটি গাড়ির ব্যবস্থা করেন সার্জেন্ট কৃষ্ণ দাস। একটি ফাঁকা অ্যাম্বুলেন্স দেখতে পেয়ে সেটিকেও থামান তিনি। সেইসব গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্সেই উদ্ধার হওয়া মা ও সদ্যোজাত শিশুদের স্থানীয় একটি হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন তিনি।

ইতো মধ্যে চলে এসেছে ডায়মন্ড হারবার ট্রাফিক গার্ডের বিশেষ টিম। ঘটনাস্থলে এসে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন ঠাকুরপুকুর ট্রাফিক গার্ডের অফিসার-ইন-চার্জও। উদ্ধারকারী টিমের সঙ্গে রাইস কোচিং সেন্টারের সমস্ত ছাত্রছাত্রীদের নিরাপদে বাইরে বের করে আনার কাজেও হাত লাগান সার্জেন্ট কৃষ্ণ দাস। কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি। ঘটনাস্থলে পৌঁছে দমকল আগুন নেভানোর কাজ সম্পন্ন করে।

এ ঘটনায় কলকাতা পুলিশের পক্ষ থেকে সার্জেন্ট কৃষ্ণ দাসকে কুর্নিশ জানানো হয়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *