আন্তর্জাতিক Archives - Women Words

আন্তর্জাতিক

৭০ বছর পর কোনো নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করল যুক্তরাষ্ট্র

৭০ বছর পর কোনো নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করল যুক্তরাষ্ট্র

প্রায় সত্তর বছর পর যুক্তরাষ্ট্রে কোনো ফেডারেল নারী বন্দীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়েছে। একাধিক মানবাধিকার সংস্থার আপত্তি থাকলেও তা আমলে নেয়নি কর্তৃপক্ষ। বিবিসি জানায়, বুধবার স্থানীয় সময় রাত সাড়ে দেড়টার পরই ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যের টেরে হাউটের কারাগারে প্রাণনাশক ইনজেকশন প্রয়োগ করে লিসা মন্টগোমেরি নামে ওই নারীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। ২০০৪ সালে মিসৌরিতে এক অন্তঃসত্ত্বা নারীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছিলেন লিসা। এরপর পেট কেটে বাচ্চাকে বের করে নিয়েছিলেন। এ ঘটনায় ফেডারেল আদালত লিসাকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিল। বুধবার মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের সময় লিসার ঠিক পেছনে থাকা এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, তাকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল, শেষ কিছু বলার আছে কী না? কিন্তু লিসার উত্তর ছিল, না; মানে কিছুই বলার নেই। লিসার আইনজীবী কেলি হেনরি বলেন, ‘এই মৃত্যুদণ্ড কার্যকরে যারাই অংশ নিয়েছেন তাদের সবাই লজ্জা পাওয়া উচিত।’ এক বিব
নারীদের কুমারীত্ব পরীক্ষা অবৈধ : পাকিস্তানের আদালত

নারীদের কুমারীত্ব পরীক্ষা অবৈধ : পাকিস্তানের আদালত

ধর্ষণের শিকার নারীদের কুমারীত্ব পরীক্ষা অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন পাকিস্তানের একটি আদালত। সোমবার (৪ জানুয়ারি) দেশটির পাঞ্জাব প্রদেশের রাজধানী লাহোরের হাইকোর্ট এই রায় ঘোষণা করেন। এই প্রথম পাকিস্তানের কোনো আদালত এমন যুগান্তকারী রায় দিয়েছেন বলে জানিয়েছে জার্মান গণমাধ্যম ডয়চে ভেলে এবং মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন। এদিকে এই রায়ের মাধ্যমে নারী অধিকার আন্দোলনের জয় হয়েছে বলে মনে করেন দেশটির মানবাধিকার কর্মীরা। তাদের আশা শিগগিরই গোটা পাকিস্তানেই এই রায় আইন করে কার্যকর করা হবে। রায় ঘোষণার সময় লাহোর হাইকোর্ট বলেন, চিকিৎসা বিজ্ঞান অনুযায়ী যৌন হয়রানির শিকার নারীদের কুমারীত্ব পরীক্ষার কোনো ভিত্তি নেই। তাছাড়া এই পরীক্ষা ভুক্তভোগী নারীর ব্যক্তিগত সম্মানের জন্যও ক্ষতিকর। সম্প্রতি ধর্ষকদের কড়া শাস্তির ব্যবস্থা করার পাশাপাশি পাকিস্তানে বিদ্যমান ধর্ষণ প্রতিরোধে আইনেও ব্যাপক পরিবর্তন আনা হয়েছে। কিন্তু
অষ্টমবার মার্কিন স্পিকার হলেন ন্যান্সি

অষ্টমবার মার্কিন স্পিকার হলেন ন্যান্সি

সেই ২০০৩ থেকে ন্যান্সি পেলোসি স্পিকার। ৮০ বছর বয়সী আমেরিকার এই রাজনীতিক অবশ্য বলেছেন, আর দুই বছর তিনি স্পিকার থাকতে চান। তারপর আর নয়। তবে এবার ন্যানসির জয় সহজ ছিল না। ডেমোক্র্যাট সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকা সত্ত্বেও ন্যান্সি স্পিকার পদ জিতেছেন মাত্র সাত ভোটে (২১৬-২০৯)। দলের ভিতরেই বিরোধিতা ছিল। অনেক তরুণ সদস্য স্পিকার পদের দাবিদার ছিলেন। করোনার কারণে অনেকে আসেননি। তবে সেই সব বাধা অতিক্রম করে পেলোসি আবার স্পিকার নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া জামাল বাউম্যান এবারেই প্রথম মার্কিন পার্লামেন্টে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, ‘আমি স্থায়িত্বের জন্যই ন্যান্সিকে ভোট দিয়েছি।’ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ভরপুর বিরোধিতা করার জন্য ডেমোক্র্যাটদের মধ্যে একটা বড় অংশ পেলোসির প্রশংসা করেন। তাঁরা মনে করেন, পেলোসি হলেন অসাধারণ পার্লামেন্ট সদস্য এবং খুবই কঠোর মধ্যস্থতাকারী। হাউস অফ রিপ্রেজেনটেটিভে ডেমোক্র্যাটরা সংখ্যা
নারী অধিকারকর্মী লৌজাইনকে কারাদণ্ড দিয়েছে সৌদি আরব

নারী অধিকারকর্মী লৌজাইনকে কারাদণ্ড দিয়েছে সৌদি আরব

প্রখ্যাত নারী অধিকারকর্মী লৌজাইন আল-হাতলুলকে পাঁচ বছর আট মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে সৌদি আরব। তার বিরুদ্ধে সৌদির রাজনৈতিক ব্যবস্থা পরিবর্তন ও জাতীয় নিরাপত্তার ক্ষতিসাধনের অভিযোগ আনা হয়েছে। তার পরিবার ও সংবাদমাধ্যম বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এ রায় আন্তর্জাতিক সমালোচনার পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত বাইডেন প্রশাসনের সঙ্গে সৌদি আরবের টানাপড়েন তৈরি করবে বলে মনে করা হচ্ছে। ২০১৮ সালের ১৫ মে বেশ কয়েকজন অধিকারকর্মীর সঙ্গে গ্রেফতার হন ৩১ বছর বয়সী হাথলুল। এই নারীদের দীর্ঘদিন ধরে কারাগারে আটক রাখা হয়েছে কোনোরকম সাক্ষ্যপ্রমাণ ছাড়া। সোমবার রায় ঘোষণার সময় আদালত হাথলুলেরেএরইমধ্যে কারাগারে থাকার সময়গুলো সাজা থেকে বাদ দেওয়ার কথা বলেছেন। সে অনুযায়ী এই নারী অধিকারকর্মীর জেলে থাকার সময় ২ বছর ১০ মাস বাদ যাবে। সৌদির স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে তিনি মুক্তি পেতে পারেন।
ভূস্বর্গের প্রথম নারী বাসচালক

ভূস্বর্গের প্রথম নারী বাসচালক

যদি লক্ষ্য থাকে অটুট, থাকে নিজের ওপর আস্থা, তাহলে রক্তচক্ষু উপেক্ষা করা যায় অবলীলায়। দক্ষ হাতে স্টিয়ারিং ধরে পৌঁছানো যায় গন্তব্যে। এ কথা আবারও প্রমাণ করলেন ভূস্বর্গখ্যাত জম্মু-কাশ্মিরের এক নারী। ত্রিশ বছর বয়সী ওই নারীর নাম পূজা দেবী। ভারতের জম্মু-কাশ্মিরে যাত্রীবাহী বাসের প্রথম নারী চালক হিসেবে নজির গড়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) একটি যাত্রীবাহী বাস চালিয়ে কাঠুয়া থেকে তিনি জম্মুতে যান। এরই সঙ্গে পুরুষতান্ত্রিক সমাজের রক্তচক্ষুকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে শুরু হলো ট্যাবু ভাঙার যাত্রা। এ সময় তার বড় ছেলে এবং ক্লাস সিক্সে পড়া মেয়ে তার পাশের সিটে বসা ছিল। কাঠুয়া জেলার সন্ধ্যার বাসলি নামক প্রত্যন্ত গ্রামে বড় হয়েছেন পূজা দেবী। তিনি এখন দুই সন্তানের মা। পূজা বলেন, জম্মু-কাঠুয়া-পাঠানকোট একটি কঠিন রাস্তা। মালবাহী ভারী গাড়ি চলে এই মহাসড়কে। কিন্তু এই চ্যালেঞ্জ নেওয়াই তো ছিল আমার স্বপ্ন। অবশেষে
বিশ্বের সেরা ১০ বিজ্ঞানীর তালিকায় বাংলাদেশের অনন্যা

বিশ্বের সেরা ১০ বিজ্ঞানীর তালিকায় বাংলাদেশের অনন্যা

কৃষ্ণগহ্বর নিয়ে গবেষণার জন্য সায়েন্স নিউজের  ‘এসএন টেন : সায়েন্টিস্ট টু ওয়াচ’ তালিকার সেরা দশ বিজ্ঞানীর তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন বাংলাদেশি তরুণী তনিমা তাসনিম অনন্যা। তালিকার শুরুর দিকে জায়গা হয়েছে অনন্যার। সায়েন্স নিউজের ওয়েবসাইটে গত ৩০ সেপ্টেম্বর এ সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। এ নিয়ে ষষ্ঠবারের মতো এমন বিজ্ঞানীর তালিকা প্রকাশ করল তারা। কৃষ্ণগহ্বরের নিখুঁত ছবি তৈরি করেছেন তনিমা তাসনিম অনন্যা। গবেষণার এ কাজকেই বিস্তারিতভাবে উল্লেখ করেছে সায়েন্স নিউজ। সেখানে বাংলাদেশি এ তরুণীর কাজকে ‘অসাধারণ গবেষণা’ বলে অভিহিত করা হয়েছে। তনিমা তাসনিম অনন্যা এর আগে নাসা ও সার্নে ইন্টার্নশিপ করেছেন। এ ছাড়া তিনি কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়েও কিছুদিন পড়াশোনা করেছেন। ২০১৯ সালে পিএইচডি সম্পন্ন করেন তনিমা। সায়েন্স নিউজের ওয়েবসাইটে লেখা রয়েছে, তনিমা তাসনিম একজন মহাকাশবিজ্ঞানী। বর্তমানে ডার্টমাউথ কলেজ
উনিশ বছরে ক্রীড়া মন্ত্রী হলেন নারী ফুটবলার

উনিশ বছরে ক্রীড়া মন্ত্রী হলেন নারী ফুটবলার

ইতিহাস সৃষ্টি করে মাত্র ১৯ বছর বয়সেই বলিভিয়ার ক্রীড়া উপমন্ত্রী হলেন দেশটির নারী ফুটবলার সিয়েলো ভিজাগা। দেশটির ক্ষমতাসীন দল মুভমেন্ট ফর সোশ্যালিজম (এমএএস) তাকে এ দায়িত্ব দিয়েছে। গত শুক্রবারে তার শপথপাঠও হয়ে গেছে বলে জানায় স্পেনের সংবাদমাধ্যম মার্কা। দেশের ক্রীড়াঙ্গনের অবস্থার উন্নতির জন্য প্রেসিডেন্ট লুইস আর্সের নেওয়া একাধিক সিদ্ধান্তের মধ্যে এটি একটি। দায়িত্ব পেয়েই দেশের তরুণ ক্রীড়াবিদদের জন্য কাজ করার ঘোষণা দিয়েছেন উপমন্ত্রী সিয়েলো ভিজাগা। এর আগে বয়সভিত্তিক বিভিন্ন পর্যায়ে বলিভিয়ার প্রতিনিধিত্ব করেছেন ভিজাগা। নিজের প্রথম ভাষণে ভিজাগা বলেন, যেকোনো মহামারির বিরুদ্ধে সবচেয়ে কার্যকরী ওষুধ হলো খেলাধুলা। দেশকে ঐক্যবদ্ধ করার কাজেও সবচেয়ে ভালো ভূমিকা রাখে এটি।
মিয়ানমার সেনাদের বিরুদ্ধে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলায় জয় রাখাইন নারীর

মিয়ানমার সেনাদের বিরুদ্ধে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলায় জয় রাখাইন নারীর

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় মাসব্যাপী লড়াই করে বিরল জয় পেয়েছেন দেশটির রাখাইন রাজ্যের নারী থেইন নু। খবর আল জাজিরার। মামলার রায়ে তিনজন ধর্ষককে ২০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। থেইন আশা করেন, এই রায় ধর্ষণের শিকার অন্য নারীদের সাহস নিয়ে মুখ খুলতে অনুপ্রেরণা যোগাবে এবং সেনাবাহিনীর অপরাধ করে শাস্তি এড়িয়ে যাওয়াকে চ্যালেঞ্জ করবে। ৩৬ বছর বয়সী থিয়েন নু চারজন সেনা সদস্যের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেছিলেন। মিয়ানমারে বিবাদমান অঞ্চলগুলোতে ধর্ষণকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহারের অভিযোগ দেশটির সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে অনেক দিন থেকেই আছে। থেইনকে এ বছরের জুনে উত্তর রাখাইন অঞ্চলে ধর্ষণ করা হয়েছিল। প্রায় দুই বছর ধরে রাখাইনের আরাকান আর্মির সঙ্গে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর যুদ্ধ চলছে। রাখাইনের আদিবাসীদের স্বাধীনতা দাবি করে আসছে আরাকান আর্মি। পরিচয় গোপন রাখতে ছদ্মনাম ব্যবহার ক
‘আমি পিরামিডের ঐতিহ্য তুলে ধরতে চেয়েছি, আমাকে গ্রেপ্তার করা হলো’

‘আমি পিরামিডের ঐতিহ্য তুলে ধরতে চেয়েছি, আমাকে গ্রেপ্তার করা হলো’

মিসরে পিরামিডের সামনে ক্লিওপেট্রার সাজে ছবি তোলায় খ্যাতনামা মডেল সালমা আল-শিমিকে গ্রেপ্তার করেছে মিসরীয় পুলিশ। একই সঙ্গে ফটোগ্রাফারকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অবশ্য পরে তাঁরা জরিমানা দিয়ে ছাড়া পান। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো গুরুত্বসহকারে এ খবর প্রচার করছে। নভেম্বরের শেষেই মিসরের পিরামিডের সামনে এই ছবিগুলো তুলেছিলেন ওই ফটোগ্রাফার। প্রাচীন মিসরীয়র বেশেই ক্যামেরার সামনে পোজ দেন সালমা। সেই ছবি আপলোড করেন নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে। অল্প সময়েই দাবানলের মতো তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। মিশরীয় প্রশাসনেরও নজরে পড়ে। এর পরই ফ্যাশন ফটোগ্রাফারকে পিরামিডের সম্মানহানির জন্য গ্রেপ্তার করা হয়। এদিন কায়রো শহরের বাইরে এক পিরামিডের সামনে খোলামেলা স্বল্প পোশাকে ফটোশুট করছিলেন সালমা-আল-শাইমি । আর এই ছবি প্রকাশ্যে আসে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে, তারপরেই নেটিজেনদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে। ঘটনা হাতের
বাইডেনের যোগাযোগ বিভাগ সামলাবেন নারীরা

বাইডেনের যোগাযোগ বিভাগ সামলাবেন নারীরা

যুক্তরাষ্ট্রের সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে জয়ী প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন হোয়াইট হাউসে যোগাযোগ বিভাগে যাদের নাম ঘোষণা করেছেন তাদের সবাই নারী। দেশটির ইতিহাসে এই প্রথমবারের মতো এ ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে বাইডেন কার্যালয় থেকে বলা হয়েছে। ওয়াশিংটন পোস্ট। হোয়াইট হাউস প্রেস সেক্রেটারি হিসেবে জেন সাকির নাম ঘোষণা করা হয়েছে। ৪১ বছর বয়সী সাকি এর আগে ওবামা প্রশাসনে হোয়াইট হাউসের যোগাযোগ পরিচালকসহ একাধিক শীর্ষ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। এক বিবৃতিতে বাইডেন বলেছেন, ‘আমি আনন্দের সঙ্গে ঘোষণা করছি, প্রথমবারের মতো হোয়াইট হাউসের শীর্ষ যোগাযোগ দল নারীদের সমন্বয়ে গঠিত হচ্ছে। এই দক্ষ, অভিজ্ঞ জনসংযোগকারীরা বিভিন্ন দৃষ্টিকোণ থেকে এবং দেশকে আরও উন্নত করে গড়তে অভিন্ন অঙ্গীকার নিয়ে কাজ করবেন।’ সাকি ছাড়াও আরও ছয়জনকে বিভিন্ন পদে নিয়োগ দেওয়া হয়। এর মধ্যে হোয়াইট হাউসের যোগাযোগ পরিচালক হিসেবে বাইডেনের উপপ্রচার ব্যবস্থাপক