আন্তর্জাতিক

প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে অ্যাঞ্জেলিনা জোলির চিঠি

প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে অ্যাঞ্জেলিনা জোলির চিঠি

হামলার মুখে প্রাণ বাঁচাতে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন মার্কিন অভিনেত্রী, চলচ্চিত্র নির্মাতা অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর এর বিশেষদূত জোলি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পাঠানো এক চিঠিতে এমন প্রশংসা করেন। চিঠিতে তিনি বলেন, ‘ইউএনএইচসিআর মিয়ানমার থেকে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের স্থায়ী প্রত্যাবাসনের উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টিতে চেষ্টা অব্যাহত রাখবে।’ জোলি আশাবাদ প্রকাশ করে বলেন, ‘২০২০ সালের মার্চ মাসে চালু হতে যাওয়া রোহিঙ্গাদের মানবিক সংকট মোকাবিলার উদ্যোগ ও পরিকল্পনায় বাংলাদেশের সুদৃঢ় অবস্থান থাকবে।’ রোহিঙ্গাদের মানবিক সহায়তার ব্যাপারে নিজের সমর্থন অব্যাহত রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিখ্যাত এ অভিনেত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশের জনগণের এমন সমর্থনের জন্য তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।’ গ
ব্রিটেনে নতুন অভিবাসন নীতি

ব্রিটেনে নতুন অভিবাসন নীতি

সকলের জন্য আর দরজা খোলা রাখছে না ব্রিটেন। শুধুমাত্র ‌‘দক্ষ ও সেরা’দেরই ভিসা দেবে বরিস জনসনের দেশ।আগামী বছর থেকে ব্রিটেনে পয়েন্টভিত্তিক কাজের ভিসা পদ্ধতি চালু হবে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন সে দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি পটেল। তাঁর কথায়, ‘সবচেয়ে সম্ভাবনাময় এবং শ্রেষ্ঠরাই ব্রিটেনে এসে কাজের সুযোগ পাবেন।’ সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে কর্মদক্ষতা, শিক্ষাগত যোগ্যতা, বেতন এবং কী কাজ করতে চান—তার ভিত্তিতেই পয়েন্ট নির্ধারিত হবে। আর সেই নিরিখেই দেওয়া হবে কাজের ভিসা। এই ভিসার জন্য ইংরেজি বলার দক্ষতা আবশ্যিক হবে বলে জানিয়েছেন প্রীতি। বিরোধী লেবার পার্টির বক্তব্য, নতুন ভিসা-নীতির জন্য তৈরি হওয়া ‘প্রতিকূল পরিস্থিতি’তে শ্রমিক পাওয়া কঠিন হবে। লিবারাল ডেমোক্র্যাটদের মতে, বিদেশিদের সম্পর্কে অহেতু ভয় থেকেই সরকারের এমন সিদ্ধান্ত। গত ৩১ জানুয়ারি প্রাথমিক ভাবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ছেড়েছে ব্রিটেন। এক বছর চলবে ‘ট্রান
ঋতুস্রাব হলেই বিয়ে বৈধ : পাকিস্তানের আদালত

ঋতুস্রাব হলেই বিয়ে বৈধ : পাকিস্তানের আদালত

পাকিস্তানে ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরীকে অপহরণের পর জোরপূর্বক করা বিয়েকে বৈধতা দিয়েছে দেশটির নিম্ন আদালত। কোনো মেয়ে প্রাপ্তবয়স্ক না হলেও প্রথম ঋতুস্রাব হলেই শরিয়াহ মোতাবেক তাকে বিয়ে করা যাবে। সাধারণত ৯ থেকে ১৩ বছর বয়সে মেয়েদের প্রথম ঋতুস্রাব হয়ে থাকে। তবে শারীরিক গঠনভেদে বয়সের তারতম্য ঘটতে পারে। পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশের নিম্ন আদালতে এমন রায় দেওয়া হয়েছে বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে ভারতীয় সম্প্রচার মাধ্যম ‘এনডিটিভি’। গত সোমবার এই মামলার রায় দিতে গিয়ে বিয়ের জন্য বয়স কোনো বিষয় নয় বলে উল্লেখ করল দুই বিচারপতি মহম্মদ ইকবাল ও ইরশাদ আলি শাহ। এই বিষয়ে তাদের নির্দেশ, প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার কোনো দরকার নেই। মেয়েটি ঋতুমতী হলেই বিয়ে দেওয়া যাবে। শরিয়ত আইন অনুযায়ী, এটা স্বীকৃত। এনডিটিভি’র ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৯ সালের ১০ অক্টোবর হুমা ইউনুস নামে খ্রিস্টান পরিবারের এক মেয়েকে বাড়ি থেকে অপহরণ করা হয়। হুমাক
করোনাভাইরাসের শঙ্কার মধ্যে ‘গণবিবাহ’

করোনাভাইরাসের শঙ্কার মধ্যে ‘গণবিবাহ’

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রকোপ নিয়ে ‍খুব একটা চিন্তিত নয় দক্ষিণ কোরিয়া। তাই সব শঙ্কা উড়িয়ে দিয়ে আজ শুক্রবার দেশটির রাজধানী সিউলেতে আয়োজিত হয় গণবিয়ের। এতে অংশ নেন কয়েক হাজার যুগল। দক্ষিণ কোরিয়ার ঐতিহ্যবাহী গণবিয়ের অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হয় সিউলের উত্তরপশ্চিমের গ্যাপিঅংয়ের চেয়ং শিম পিস ওয়ার্ল্ড সেন্টারে। এতে উপস্থিত ছিলেন ৩০ হাজার মানুষ। বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এ বিয়ের পিঁড়িতে বসেছে অন্তত ছয় হাজার যুগল। দেশটির গণবিয়ের ইতিহাসে এই প্রথম এত যুগল বিয়ের পিড়িতে বসল। করোনাভাইরাসের শঙ্কা উড়িয়ে দিলেও রয়টার্সের প্রকাশ করা ছবিগুলোতে বর-কনেকে দেখা গেছে মাস্ক পরিধান করতে। বিয়ের পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে মাস্ক পরেছেন তারা। বরের পোশাক ছিল কালো, কনে পরেছিলেন সাদা গাউন। কিছু ছবিতে অবশ্য বর-কনেকে মাস্ক ছাড়া দেখা গেছে। তাদের ভাষ্য ভালোবাসার মানুষের চোখে সুন্দর দেখাতে মাস্ক ব্যবহার করেননি তারা।
আইএস বধু শামীমাকে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব চাওয়ার পরামর্শ

আইএস বধু শামীমাকে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব চাওয়ার পরামর্শ

লন্ডন থেকে সিরিয়ায় গিয়ে আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটে (আইএস) যোগ দেওয়া বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত শামীমা বেগমের ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিল করার সিদ্ধান্তকে বৈধ বলে রায় দিয়েছেন যুক্তরাজ্যের আদালত। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, আজ শুক্রবার এ রায় দেওয়া হয়। আদালত বলেছেন, ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিলের ফলে শামীমা বেগম রাষ্ট্রহীন হয়ে যাননি। মা-বাবা বাংলাদেশি বলে তিনি বাংলাদেশের নাগরিকত্ব দাবি করতে পারেন। এর ফলে ব্রিটিশ নাগরিকত্ব ফিরে পাওয়ার প্রাথমিক লড়াইয়ে হেরে গেলেন শামীমা বেগম। যুক্তরাজ্যের জাতীয় নিরাপত্তা-সংশ্লিষ্ট মামলার বিচারকাজ হয়, এমন আংশিক-গোপন আদালতে (দ্য স্পেশাল ইমিগ্রেশন আপিল কমিশন) শামীমার নাগরিকত্ব বাতিলের বৈধতা নিয়ে করা চ্যালেঞ্জের বিষয়টির শুনানি হয়। আদালত বলেছেন, আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী, কোনো ব্যক্তিকে রাষ্ট্রহীন করার সুযোগ নেই। তবে ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিলের
সেনাবাহিনীতে নারী কমান্ডার চায় না ভারত সরকার

সেনাবাহিনীতে নারী কমান্ডার চায় না ভারত সরকার

অমিতাভ ভট্টশালী ভারত সরকার দেশের সুপ্রিম কোর্টকে জানিয়েছে সেনাবাহিনীতে নারী অফিসারদের নেতৃত্বদানকারী পদ দেওয়াটা অনুচিত হবে। নারীরা কোনও অংশেই পুরুষদের থেকে কম নন, এটা স্বীকার করেও বলা হয়েছে যে কমান্ডিং অফিসার পদে যদি নারীরা থাকেন তাহলে বাহিনীর সদস্যরা, যাদের অধিকাংশই গ্রামাঞ্চল থেকে আসেন, তারা নারী অফিসারকে নাও মেনে নিতে পারেন। এছাড়াও নারীদের শারীরিক ও মানসিক ক্ষমতা পুরুষ অফিসারদের থেকে কম এবং যদি যুদ্ধ-বন্দী হিসাবে নারী অফিসাররা ধরা পড়েন শত্রু দেশের হাতে, তখন তাদের বেশি বিপদের মুখে ঠেলে দেওয়া হবে - এইসব যুক্তিও দেখানো হয়েছে। প্রাক্তন সেনা কর্মকর্তা থেকে শুরু করে আইনজীবী - অনেকেই সরকারের এই পুরুষতান্ত্রিক মনোভাবের সমালোচনা করছেন। সুপ্রিম কোর্টের যে বেঞ্চে এই সংক্রান্ত মামলাটির শুনানি চলছে, তারাও বলেছে মানসিকতার পরিবর্তন হলেই নারী অফিসারদের কমান্ডার হিসাবে নিয়োগ করা য
অসংখ্য নারীকে যৌন হয়রানি, সিসিটিভিতে ধরা পড়ল দৃশ্য

অসংখ্য নারীকে যৌন হয়রানি, সিসিটিভিতে ধরা পড়ল দৃশ্য

ভারতের মুম্বইয়ের নির্জন এক রেলসেতু। এখানে দেখা মিল‌ত সেই তরুণের। সাদা শার্ট ও নীল জিন্স পরিহিত সেই তরুণ জনহীন সেতুতে কোনো তরুণীর দেখা পেলেই ছুটে যেত। তারপর সেই তরুণীকে খারাপ ভাবে স্পর্শ ও চুম্বন করত। তারপর তাদের হতভম্ব অবস্থায় রেখে দৌড়ে পালিয়ে যেত। অবশেষে সেই অভিযুক্ত তরুণকে সনাক্ত করল পুলিশ। মুম্বাইয়ের মাতুঙ্গা রেলসেতুতে তাকে দেখা যেত নারীদের নিগ্রহ করতে। সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে সেই তরুণের কাণ্ড। গতকাল বৃহস্পতিবার চুরির মামলায় ধরা পড়ে সেই তরুণ। পুলিশ জানিয়েছে, সেই তরুণের বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ ওঠায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এরপরই পুলিশ সনাক্ত করে ফেলে ওই তরুণকে। বুঝতে পারে, এই তরুণকেই সিসিটিভিতে তাকে দেখা গেছে। তবে পুলিশ এখনো কোনো শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের করেনি। আক্রান্ত নারীরা এগিয়ে এসে অভিযোগ দায়ের করবেন, আপাতত সেই অপেক্ষায় পুলিশ। সিসিটিভিতে শেষবার ওই তরুণকে দেখা গেছে
সোনিয়া গান্ধী হাসপাতালে ভর্তি

সোনিয়া গান্ধী হাসপাতালে ভর্তি

উইমেন ওয়ার্ডস ডেস্ক :: অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের অন্তবর্তিকালীন সভাপতি সোনিয়া গান্ধী। রবিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাকে দিল্লির স্যার গঙ্গারাম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াঙ্গা গান্ধী। তবে রুটিন চেকআপ নাকি শারীরিক কোনও সমস্যা নিয়ে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন, তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, হাসপাতালে তার কিছু টেস্ট করা হবে। সূত্রের বরাত দিয়ে জি-নিউজ বলছে, সোনিয়া গান্ধীর পাকস্থলীতে কোনও সমস্যা হয়েছে। জ্বরও রয়েছে তার। তবে, দেশটির সংবাদসংস্থা এএনআইয়ের খবর অনুযায়ী, রুটিন চেকআপের জন্যই তাকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে। উল্লেখ্য, এবারের বাজেট পেশের দিন সংসদে অনুপস্থিত ছিলেন সোনিয়া গান্ধী। বেশ অসুস্থ। জানা গেছে, ২০১১ সালে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাসপাতালে তার একটি অস্ত্রপচার হয় তার। তবে ক
বিয়ে করছেন বিল গেটস কন্যা

বিয়ে করছেন বিল গেটস কন্যা

উইমেন ওয়ার্ডস ডেস্ক :: বিয়ের পীড়িতে বসছেন বিশ্বের শীর্ষ ধনী ও মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের মেয়ে জেনিফার গেটস। তিনি বিয়ে করছেন মিশরের ঘোড় দৌড়বিদ নায়েল নাসেরকে। গত বৃহস্পতিবার নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে একটি পোস্ট দিয়ে ২৩ বছর বয়সী জেনিফারই নিজের বিয়ের খবর দেন। পোস্টে তিনি লিখেন, ‘হ্যাঁ, ভালোবাসার বন্ধনে জড়িয়ে বহুদিনের প্রতীক্ষার অবসান ঘটালো নায়েল নাসের।’ বরফ ঢাকা একটি স্থানে দুইজন কাছাকাছি বসা একটি ছবি পোস্ট করে জেনিয়ার লেখেন, ‘তুমি অনন্য। এই সপ্তাহান্তে তুমি আমায় একেবারে অবাক করে এমন জায়গায় নিয়েছো, যা আমার কাছে স্বপ্নের মতো ছিল। আমরা শিখতে, বাড়তে, হাসতে এবং ভালোবাসতে কাটিয়ে দেবো আমাদের জীবন।’ লেখার পরে একটি আংটির ইমোজিও দেন তিনি। মিশরে জন্ম নেওয়া নাসেরের বেড়ে ওঠা কুয়েতে। ক্যালিফোর্নিয়ার স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় তাদের মধ্যে পরিচয়। দু’জনেই ঘোড় দৌড়ের প্রতি অন
মার্কিন প্রেমিকের গুলিতে বাঙালি তরুণী নিহত

মার্কিন প্রেমিকের গুলিতে বাঙালি তরুণী নিহত

উইমেন ওয়ার্ডস ডেস্ক :: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ প্রেমিকের গুলিতে বাংলাদেশি এক তরুণী নিহত হয়েছেন। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যে এই ঘটনা ঘটে। ঘাতক প্রেমিকের নাম ডেরিক ম্যান। নিহত তরুণীর নাম সিনথিয়া কস্তা (২২)। তার গ্রামের বাড়ি বাংলাদেশের গাজীপুরের কালীগঞ্জ থানায়। সিনথিয়া তার বাবা এন্ড্রু ডি'কস্তা ও মা সিসিলিয়া কস্তা মেরিল্যান্ডের সিলভার ষ্প্রিং শহরে নিজ বাড়িতে বসবাস করতেন। পরে প্রেমিকের বাড়িতে গিয়ে খুন হন তিনি। জানা গেছে, সিনথিয়া মার্কিন সেনাবাহিনীতে কর্মরত ডেরিক ম্যানের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়লেও তাদের বিয়েতে রাজি হননি সিনথিয়ার মা-বাবা। পরে ওই যুবক সেনাবাহিনীর চাকরি ছেড়ে দিয়ে তাকে ইন্ডিয়ানা রাজ্যের বাড়িতে নিয়ে যেতে চান। ঘটনার আগে মা-বাবার অমতে হয়ে গত ১২ জানুয়ারি সিনথিয়া ইন্ডিয়ানায় যুবকের কাছে চলে যান। শুক্রবার বিকেলে ইন্ডিয়ানা পুলিশ সিনথিয়ার বাবাকে জানায়, তার