সংগ্রামী নারী | Women Words

সংগ্রামী নারী

পারভীন হাসান টিআইবির নতুন চেয়ারপারসন

পারভীন হাসান টিআইবির নতুন চেয়ারপারসন

উইমেন ওয়ার্ডস ডেস্ক :: ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) ট্রাষ্টি বোর্ডের নতুন চেয়ারপাসন নির্বাচিত হয়েছেন সেন্ট্রাল উইমেন্স ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক পারভীন হাসান। আগামীকাল ২২ ফেব্রুয়ারি শনিবার থেকে তিনি বর্তমান চেয়ারপারসন অ্যাডভোকেট সুলতানা কামালের স্থলাভিষিক্ত হবেন। এছাড়া সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিব আলী ইমাম মজুমদার বোর্ডের নতুন মহাসচিব, অধ্যাপক ড. তাসনিম সিদ্দিকী ও অ্যাডভোকেট সুস্মিতা চাকমা নতুন সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার টিআইবির ধানমন্ডি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বোর্ডের ১০৩তম সভায় সর্বসম্মতিক্রমে তাদের নির্বাচিত করা হয়।
মুক্তিযুদ্ধে সিলেটের নারী: পর্ব-১

মুক্তিযুদ্ধে সিলেটের নারী: পর্ব-১

আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধকে ঘিরে এক কাতারে এসে দাঁড়িয়েছিল আবালবৃদ্ধবণিতা, ছাত্র-শিক্ষক, কৃষক-মুটে-মজুর-কুলি, পেশাজীবি-শ্রমজীবী সবাই। মুক্তির আকাঙ্খায় মুছে গিয়েছিল ধর্ম-বর্ণ-লিঙ্গ-অবস্থানভেদ। মুক্তিযুদ্ধে সংগ্রামের, ত্যাগের, সহ্যের, সাহসের এক অকৃত্রিম তুলনাহীন ভূমিকা পালন করেছিলেন আমাদের নারীরা। মুক্তিযুদ্ধে সিলেট অঞ্চলের নারীদের ভূমিকা নিয়ে অপূর্ব শর্মা লিখেছেন ‘মুক্তিযুদ্ধে সিলেটের নারী’। উইমেন ওয়ার্ডস-এর পাঠকদের জন্য ধারাবাহিক ভাবে লেখাটি প্রকাশ করা হবে। আজ রইলো প্রথম পর্ব। পটভূমি ধর্মীয় ও সামাজিক বিধিনিষেধের কারনে শতাব্দির পর শতাব্দি নারীরা ছিলেন অবরোধবাসিনী। সেই অবরুদ্ধাবস্থা থেকে নারীদের বের হয়ে আসার প্রচেষ্টা শুরু হয় উনিশ শতকে। বিংশ শতাব্দিতে এসে নারী সমাজের ছোট্ট একটি অংশ আধুনিক শিক্ষা লাভে সচেষ্ট হয়। তারা নিজেদেরকে সার্থকতার সাথে প্রমান করেন। তবে সেই সকল নারীরা সাহিত্য চর্র্চার প্র
নারীদের রেসলিং উন্মুক্ত করলো এবার সৌদি আরব

নারীদের রেসলিং উন্মুক্ত করলো এবার সৌদি আরব

কট্টর ইসলামি শাসন ব্যবস্থার দেশ সৌদি আরবে নারীদের জন্য অভিভাবকত্ব আইন প্রচলিত রয়েছে। এই আইন অনুযায়ী নারীদের ঘরের বাইরে বের হওয়াসহ অন্য কাজের আগে অভিভাবেকর অনুমতির দরকার পড়ে। ২০১৭ সালে অর্থনৈতিক নির্ভরতা কমাতে সৌদি যুবরাজ এক সংস্কার পরিকল্পনা ঘোষণা করেন। সেই প্রক্রিয়ার আওতায় এরইমধ্যে সৌদি নারীদের গাড়ি চালানো ও পুরুষ সঙ্গী ছাড়াই দেশের বাইরে ভ্রমণের অনুমতি পেলেও সব বাধা দূর হয়নি এখনও। সৌদিতে গত বছর রেসলিংয়ের আয়োজন করা হয়। সেটা সরাসরি টেলিভিশনে সম্প্রচারও করা হয়েছিল। তবে সে সময় শুধুমাত্র পুরুষদের ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল এবং নারীদের ম্যাচ বাতিল করা হয়েছিল। তবে বৃহস্পতিবারের নারী রেসলিং আয়োজন সম্পর্কে সৌদি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সে দেশের নাগরিকদের বিনোদনের পরিধি বাড়াতে এমন আয়োজন করা হয়েছে। রাজধানী রিয়াদে দুই মাসব্যাপী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে সৌদি কর্তৃপক্ষ। সেখানে শতাধিক ভিন্ন ভিন্ন রকমের
নারী বলে মহাকাশে পা রাখা হয়নি হিলারির?

নারী বলে মহাকাশে পা রাখা হয়নি হিলারির?

যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্র্যাট নেত্রী হিলারি ক্লিনটন ছোটবেলায় দেশটির মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ন্যাশনাল অ্যারোনটিকস অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনকে (নাসার) জানান, তিনি মহাকাশচারী হতে চান। কিন্তু তিনি নারী হওয়ায় রাজি হয়নি নাসা। খবর ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজারের। নাসার দুই নারী মহাকাশচারী শুক্রবার পুরুষ ক্রুমেট ছাড়া মহাকাশে পা রেখে ইতিহাস গড়েছেন। এরপর হিলারি টুইট বার্তায় জানান, তাকে বলা হয়েছিল যে, মেয়েদের নেয় না নাসা। তিনি লেখেন, নতুন প্রজন্ম নারীদের মহাকাশে পা রাখা দেখল। তাদের আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্ন যেন থমকে না যায়। অবশ্য সাত মাস আগেই প্রথম নারী দলের মহাকাশে পা রাখার কথা ছিল। কিন্তু নারী মহাকাশচারীর পোশাক কম পড়ে। বিশেষজ্ঞরা জানান, এতদিন মহাকাশচারীদের পোশাক তৈরি করা হতো পুরুষদের কথা মাথায় রেখে। নারীদের তুলনায় পুরুষদের দেহের তাপমাত্রা বেশি। আরও জানান, এসব পোশাকে বিশেষ ভেন্টিলেশন ও কুলিং সিস্টেম ছিল।
বাঁধা পেরিয়ে শান্তনার কৃতিত্ব

বাঁধা পেরিয়ে শান্তনার কৃতিত্ব

বাবার অসুস্থতা, ছোট ভাইয়ের পড়াশোনার খরচ, অভাবের সংসার সবকিছু মিলিয়ে মেধাবী মেয়েটি একদিন পোশাক কারখানায় চাকরির সন্ধানে চলে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু শিক্ষকদের প্রেরণা, নিজের অদম্য ইচ্ছা আর সকলের সহযোগিতায় তিনি এখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। এ বছর বিশ্ববিদ্যালয়টির ভর্তি পরীক্ষায় ‘খ’ ইউনিটে তিনি ৮৫০তম স্থান অর্জন করেছেন। তিনি নেত্রকোনা জেলার খালিয়াজুড়ি উপজেলার মেন্দিপুর ইউনিয়নের সাতগাঁও গ্রামের অদম্য মেধাবী শান্তনা রানী সরকার। নেত্রকোনা জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলার আদর্শনগরের শহীদ স্মৃতি মহাবিদ্যালয় থেকে এবার মানবিক বিভাগে জিপিএ ফাইভ পেয়েছেন। ছোটবেলা থেকেই দারিদ্র্যের সঙ্গে লড়াই করে পড়াশোনা করতে হয়েছে শান্তনা রানী সরকারকে। এসএসসি পরীক্ষার আগে শান্তনার কৃষক বাবা সজল সরকার প্যারালাইসিসে আক্রান্ত হয়ে পড়েন। তখন শান্তনার চোখে ঘোর অন্ধকার নেমে আসে। বাধ্য হয়েই তিনি টিউশনি করে নিজের পড়াশোনা ও সংসার চালাতে
ডেমি মুরের জীবনের আলো-আঁধারির গল্পগ্রন্থ ‘ইনসাইড আউট’

ডেমি মুরের জীবনের আলো-আঁধারির গল্পগ্রন্থ ‘ইনসাইড আউট’

বাজারে আসার আগেই আলোচনায় হলিউড অভিনেত্রী ডেমি মুরের আত্মকথা গ্রন্থ ‘ইনসাইড আউট’। আজ মঙ্গলবার বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান হারপার কলিন্স থেকে গ্রন্থটি প্রকাশিত হবে। হলিউড যাত্রার ৩৮ বছর পার করা এই অভিনেত্রীর বয়স এখন ৫৬ বছর। প্রকাশিত হওয়ার আগেই এই বইয়ে থাকা বিভিন্ন বিষয় শিরোনাম হয়ে তোলপাড় তৈরি করেছে তার বইটি। উঠে এসেছে এক সফল হলিউড তারকার জীবনের নানা আলো-আঁধারির গল্প। রাডার অনলাইনের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, এই বইয়ে ডেমি মুর জীবনের সব সত্যকে নিঃসংকোচে সামনে এনেছেন। সেখানে আছে ১৫ বছর বয়সে তাঁকে ধর্ষণের ঘটনা থেকে শুরু করে আরও অনেক কিছু। ১৩ বছর পর্যন্ত মুর তাঁর বায়োলজিক্যাল বাবার পরিচয় জানতেন না। ড্যান গাইনেসকেই নিজের জন্মদাতা বাবা বলে জানতেন তিনি। একদিন নিজের মা-বাবার বিয়ের সার্টিফিকেট হাতে পান। সেখানে দেখতে পান, তাঁর বাবা আর মায়ের বিয়ে হয়েছে ১৯৬৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে। কিন্তু ত
বিজেপির রোষাণলে আসামের গবেষক রেহানা

বিজেপির রোষাণলে আসামের গবেষক রেহানা

ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচে পাকিস্তানের জয়ের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি পোস্ট দিয়েছিলেন ২০১৭ সালে। পরবর্তীতে তা ডিলিটও করে দিয়েছিলেন। কিন্তু দুবছর আগের সেই পোস্টের জেরেই এখন বিপাকে আসামের গৌহাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নারী গবেষক। রেহানা সুলতানা নামে ওই গবেষকের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করেছে আসাম পুলিশ। দুবছর আগে ডিলিট করার পরেও একটি পোস্টের জেরে সম্প্রতি দায়ের হওয়া মামলায় কার্যত হতভম্ব ওই গবেষক। যদিও তার দাবি, ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারের তৈরি করা আসামের নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদপড়া বাংলাভাষীদের নাগরিকত্ব ফিরে পাওয়া সংক্রান্ত কাজকর্মে যুক্ত থাকার জন্যই তাঁর বিরুদ্ধে প্রতিহিংসামূলক আচরণ করছে পুলিশ। ওই গবেষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, পাকিস্তানকে সমর্থনসূচক একটি পোস্ট তিনি করেন। বছর দুয়েক আগে ওই পোস্টটি যে তিনি করেছিলেন, সে কথা স্বীকার করেছেন রেহনা। পাশাপাশি এটাও দাবি করেছেন যে, ওই প
ট্রাম্পের অভিশংসন চান ঘটনার শিকার নারী আইনপ্রণেতারা

ট্রাম্পের অভিশংসন চান ঘটনার শিকার নারী আইনপ্রণেতারা

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ‘বর্ণবাদী’ আক্রোশের শিকার হওয়া চার নারী কংগ্রেস সদস্য তার বক্তব্যকে প্রত্যাখ্যান করেছেন। সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে ওই নারী সদস্যরা মার্কিনিদের ‘ট্রাম্পের বাজি’তে না ভোলার আহ্বান জানায়। তাদের কেউ কেউ ট্রাম্পের অভিশংসনেরও দাবি তোলেন। সোমবার কংগ্রেসের কয়েকজন নারী সদস্যকে নিয়ে বিদ্বেষমূলক টুইট করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ধারাবাহিক তিনটি টুইট পোস্ট করে কংগ্রেসের চার নারী ডেমোক্র্যাট সদস্যকে কটাক্ষ করেন তিনি। ওই টুইটে ট্রাম্প অভিযোগ করেন, নারী কংগ্রেস সদস্যরা এমন দেশ থেকে এসেছেন যেখানকার সরকার সম্পূর্ণ বিপর্যস্ত।" তাই সেখানেই তাদের ফিরে যেতে বলেন তিনি। তার এই টুইটের পর শুরু হয়েছে সমালোচনা, অনেকে একে বর্ণবাদ বলে আ্যখা দেন। ট্রাম্পের এই টুইট মূলত চারজন ভিন্ন বর্ণের নারী আইনপ্রণেতার উদ্দেশে। তাদের তিনজনের জন্ম যুক্তরাষ্ট্রে আরেকজন শিশু অবস্থাতেই যুক্তরাষ্ট্রে যান এব
ভারতে ঋতুমতী নারীরা জরায়ু ফেলে দিচ্ছেন!

ভারতে ঋতুমতী নারীরা জরায়ু ফেলে দিচ্ছেন!

ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য মহারাষ্ট্রের হাজার হাজার নারী অস্ত্রোপচার করে তাদের জরায়ু ফেলে দিচ্ছেন। জরায়ু ফেলে দেয়া এই নারীদের মধ্যে অল্পবয়সী তরুণীরাও রয়েছেন। সম্প্রতি দুটি প্রতিবেদনে এ সংক্রান্ত তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। কিন্তু কেন এ ধরনের কাজ করতে বাধ্য হচ্ছেন নারীরা? জানা যাক- ভারতীয় সংস্কৃতিতে মাসিক বা রক্তস্রাব একটি ট্যাবু হিসেবে চালু রয়েছে । মাসিকের সময় নারীদের অপবিত্র ও ধর্মীয় কাজে অংশগ্রহণের অনুপযোগী বিবেচনা করা হয়। তবে সম্প্রতি এই গৎবাঁধা ধারণাকে শহুরে শিক্ষিত নারীরা চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলেছেন। সম্প্রতি প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতে ঋতুস্রাব নিয়ে নারীদের সংকট বা ভোগান্তি বেড়েই চলেছে। আখের ক্ষেতে ভাড়াটে শ্রমিক হিসেবে কাজ করার সুবিধার্থেই অনেক নারী নিজেদের জরায়ু ফেলে দিচ্ছেন। ওসমানাবাদ, সাংলি ও সোলাপুরসহ আরও কিছু জেলা থেকে দরিদ্র পরিবারের হাজার হাজারো মানুষ যেখানে প্র
সশস্ত্র বাঁধা তবু সাংবাদিক হওয়ার স্বপ্ন মেয়েটির

সশস্ত্র বাঁধা তবু সাংবাদিক হওয়ার স্বপ্ন মেয়েটির

কয়েক বছর ধরে, পাকিস্তানের বেলুচিস্তান প্রদেশের একটি গ্রামে কিছু সশস্ত্র পুরুষ মেয়েদের স্কুল ঘেরাও করে রাখে। যেন মেয়েরা স্কুলের ভিতরে প্রবেশ করতে না পারে। কিন্তু সেখানকারই এক মেয়ে সব বাধা পেরিয়ে অবশেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি সম্পন্ন করেছেন। এখন তিনি প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন একজন সাংবাদিক হওয়ার জন্য। বিবিসির সংবাদদাতাকে তিনি জানান তার সেই সংগ্রামের গল্প। "আমি আমার শৈশব আতঙ্কে কাটিয়েছি," বলেন, কোয়েটার সরদার বাহাদুর খান উইমেন্স ইউনিভার্সিটির ছাত্রী নাঈমা জেহরি। "এখনও এটা নিয়ে ভাবলে আমার মেরুদণ্ড কেঁপে ওঠে।" পাকিস্তানের বেলুচিস্তান প্রদেশের খুজদার জেলার জেহারি জামশার একটি উপজাতি গ্রামে বেড়ে ওঠেন নাঈমা। তিনি বলেন, তার শৈশব একটি সময়ে হয়, যখন তার অঞ্চলে আইনহীনতা শিখরে ছিল। গণমাধ্যমের খবর জুড়ে শুধুই ছিল বেলুচ পুরুষদের ওপর লক্ষ্য করে বিভিন্ন পরিকল্পিত হামলা, অপহরণ ও হত্যার ঘটনা। ভয়, প