উদ্যোক্তা | Women Words

উদ্যোক্তা

ছয় বছরে ১০ হাজার কোটি টাকার মালিক তরুণ উদ্যোক্তা

ছয় বছরে ১০ হাজার কোটি টাকার মালিক তরুণ উদ্যোক্তা

অঙ্কিতি বসু ব্যবসা শুরু করেছিলেন মাত্র ২১ লাখ টাকা নিয়ে। চার বছরে তা ফুলেফেঁপে দাঁড়াল ৯ হাজার ৮০০ কোটিতে। মাত্র ২৭ বছর বয়সে এই অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখালেন ভারতের এই বাঙালি তরুণী। কোনো সংস্থার ব্যবসা ১০০ কোটি মার্কিন ডলার পেরোলে, কাল্পনিক জন্তুর নাম অনুসারে ইউনিকর্ন তকমা জোটে। অঙ্কিতির ফ্যাশন ই-কমার্স সংস্থা জিলিঙ্গো ইতোমধ্যে তা পেয়েছে। তার এই সাফল্যের জেরে কনিষ্ঠতম ভারতীয় নারী নির্বাচিত হলেন অঙ্কিতি, যিনি কোনো ইউনিকর্ন সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও। বাঙালি পরিবারে জন্ম হলেও, বাইরেই বেড়ে ওঠা অঙ্কিতি বসুর। ২০১২ সালে মুম্বাইয়ের সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ থেকে অর্থনীতি ও গণিত নিয়ে পড়াশোনা করেন তিনি। তারপর চাকরি শুরু করেন মার্কিন কনসাল্টিং সংস্থা ম্যাকিনজির মুম্বাই শাখায়। সেখান থেকে যোগ দেন অন্য মার্কিন সংস্থা সেকোয়া ক্যাপিটালসের বেঙ্গালুরু অফিসে। তেইশ বছর বয়সে বেঙ্গালুরুতেই বছর চব্বিশের ধ্রুব
নারী উদ্যোক্তাবিষয়ক প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের মাঝে সনদ বিতরণ

নারী উদ্যোক্তাবিষয়ক প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের মাঝে সনদ বিতরণ

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে নারী শিক্ষার্থীদের নারী উদ্যোক্তাবিষয়ক প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের মাঝে সনদ বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল সোমবার দুপুরে রংপুর ব্র্যাক লার্নিং সেন্টারে এই সনদ বিতরণ করা হয়। 'নারী উদ্যোক্তা প্রশিক্ষণ' এর জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. ওয়াজেদ রির্সাচ অ্যান্ড ট্রেনিং ইনস্টিটিউটসহ ২১টি বিভাগ থেকে আবেদনকৃত ৪৩০ জন নারী শিক্ষার্থীর মধ্য থেকে প্রতিযোগিতার ভিত্তিতে বাছাইকৃত ২০০ জন শিক্ষার্থীকে পর্যায়ক্রমে এই প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। গত বছর ১৬ অক্টোবর থেকে শুরু হয়ে ২০ নভেম্বর পর্যন্ত চলা পৃথক পৃথক ব্যাচে এবং ভিন্ন ভিন্ন বিষয়ের আলোকে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় সেন্টার ফর পিচ অ্যান্ড জাস্টিস এর এমপাওয়ার্ড ওমেন পিসফুল কমিনিটিস প্রজেক্ট এবং ইউএন ওমেন এর সার্বিক সহযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন করা হয়। সফলভাবে প্রশিক্ষণ সম্পন্নকারীদের মধ্যে অনুষ্ঠানে ১৫৫ জন শিক্ষার্থীকে স
প্রতিবন্ধীদের স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে এলেন নেহা

প্রতিবন্ধীদের স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে এলেন নেহা

ছোটবেলা থেকে স্বপ্ন দেখতেন সারা পৃথিবী ঘুরবেন। কল্পনায় ভর করে চলে যেতেন বইয়ের পাতায় দেখা সুন্দর জায়গাগুলোয়। স্কুলে সব বন্ধুরা যখন গল্প করত যে গরমের ছুটিতে কোথায় ঘুরতে গিয়েছিল তখন চুপ করে শোনা ছাড়া আর কোন উপায় ছিল না মেয়েটার। কারণ যত ইচ্ছাই থাকুক না কেন, ছোটবেলা থেকে কোনদিনই বাবা-মার সঙ্গে ঘুরতে যেতে পারেনি মেয়েটি। neha 1 -womenwords তার একমাত্র কারণ ছিল তার বাবা-মায়ের শারীরিক প্রতিবন্ধকতা। এক-দুবার ঘুরতে গিয়েছিলেন পরিবারের সঙ্গে। কিন্তু সর্বদাই তাকে আর তার পরিবারকে নানা সমস্যায় পড়তে হয়েছে। সাহায্যের পরিবর্তে শুধুমাত্র সমবেদনাই জানিয়েছে সবাই। তাই একসময় ঘুরতে যাওয়ার সাহসই হারিয়ে ফেলেছিলেন দিল্লির নেহা অরোরা। কিন্তু জীবনযুদ্ধে হারার পাত্রী নন তিনি। তার মতো যাতে অন্য কেউ এই পরিস্থিতির শিকার না হন তাই নিজের কর্পোরেট চাকরি ছেড়ে ট্রাভেল এজেন্সি খুলেছেন নেহা। নাম দিয়েছেন ‘প্ল্যানেট অ্যাবলেড’।
যেভাবে ১০০ কোটি টাকার মালিক হলেন তিনি!

যেভাবে ১০০ কোটি টাকার মালিক হলেন তিনি!

কোনও গল্প নয়। সমাজের পিছিয়ে পড়া আদিবাসী এক নারীর জীবনের লড়াইয়ের কাহিনী। যিনি জীবনে শত বাধা সত্ত্বেও উঠে দাঁড়িয়ে বুক চিতিয়ে লড়াই করেছেন। শুধু নিজের জন্য নয়, সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের জীবনের মানোন্নয়নে এগিয়ে এসেছেন। কিশোরী বয়সে মাত্র দুই টাকা রোজে দিন শুরু করে এখন তিনি কোটি টাকার মালিক, অন্যতম নারী উদ্যোক্তা। তিনি কল্পনা সরোজ। ভারতের মহারাষ্ট্রের আকোলা জেলায় একটি ছোট গ্রাম রূপরখেড়ায় ১৯৬১ সালে এক দলিত পরিবারে তার জন্ম। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে জানা যায়, ১২ বছর বয়স হতে না হতেই কল্পনার বিয়ে দিয়ে দেওয়া হয়। বিয়ের পর কল্পনা চলে যান মুম্বাই। তবে শ্বশুরবাড়িতে ভালো পরিবেশ ও খাওয়া পাওয়া তো দুরস্থান, কল্পনার উপরে রীতিমতো অত্যাচার করা হতো। এই অবস্থা ছয় মাস চলার পরে তার বাবা মেয়েকে নিয়ে গ্রামে ফিরে যান। তবে কোনও মেয়ে শ্বশুর বাড়ি থেকে ফিরে এলে সেইসময়ে গ্রামের সমাজ তাঁকে হীন দৃষ্টিতে দেখত। কল্পনার সঙ্গেও স
চা বিক্রি করে কোটিপতি

চা বিক্রি করে কোটিপতি

যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো অঙ্গরাজ্যের এক নারী শুধু c। তার নাম ব্রুক এডি। খবর এনডিটিভি। শুধু তাই নয়, উঠতি ব্যবসায়ীদের মধ্যে প্রথম পাঁচে নিজের জায়গা পাকা করে নিয়েছেন। সফল ব্যবসায়ী হিসেবে খেতাবও পেয়েছেন তিনি। ঘটনার শুরু ২০০২ সালের। ব্রুক এডি ভারতে ঘুরতে এসেছিলেন। ঘুরতে এসে ভারতীয় চা খেয়ে রীতিমতো ওই চায়ের প্রেমে পড়ে গেলেন। ভেবেছিলেন নিজের দেশ যুক্তরাষ্ট্রেও এ রকম চা পাবেন তিনি। তবে চার বছর পর দেশে ফিরে হতাশ হতে হয়েছিল ব্রুককে। কোথাও ভারতীয় চায়ের মতো স্বাদ পাননি তিনি। তাই উদ্যোগটা নিয়েছিলেন। খুলেছিলেন নিজের ভারতীয় চায়ের স্টল। নাম ভক্তি চা। একজন মার্কিনী হয়ে ভারতীয় চায়ের স্টল খুলে ২০০৭ সাল থেকে যে ব্যবসা শুরু করেন তিনি । আর এখন ২০১৮ সালে এসে তিনি কোটিপতি। যুক্তরাষ্ট্রের একটি ম্যাগাজিনের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ব্রুকের বিশেষত্ব চায়ের ইনফিউশন। ভারতীয় চা’কে মার্কিনী মোড়কে পেশ করেন ব্রু
মডেল কন্যার আত্মহত্যা : একজন গ্রেপ্তার

মডেল কন্যার আত্মহত্যা : একজন গ্রেপ্তার

গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন মডেল সাবিরা হোসাইন। আজ মঙ্গলবার (২৪ মে) ভোর ৫টা নাগাদ মিরপুরের রূপনগরে সাবলেটে বাসা থেকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় সাবিরার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওই বাসায় সাবিরা একাই থাকতেন। ফেসবুকে নিজের আত্মহত্যার বিষয়ে ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন তিনি। আত্মহত্যার আগে ফেসবুক দেওয়া স্ট্যাটাস থেকে ধারণা করা হচ্ছে, প্রেমঘটিত কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন।সাবিরা হোসাইন বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজের মডেলিং এর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন একই সাথে মোহনা টেলিভিশন এবং পরবর্তীতে গান বাংলা টেলিভিশনের মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ হিসেবে কর্মরত ছিলেন।sabira-hossain-3-Women-words এ ঘটনায় প্রেমিক নির্ঝরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ এনে নির্ঝর ও তার ভাইয়ের বিরুদ্ধে রূপনগর থানায় মামলা দায়ের করেন সাবিরার মা দিলশাদ কাদির। এরপরই তাকে গ্রেফতার করা হয়। মঙ্গলবার সকালে আত্মহত্যার আগে প্রেমিক নির্ঝর সিনহা
প্রতিবন্ধীদের স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে এলেন নেহা

প্রতিবন্ধীদের স্বপ্ন পূরণে এগিয়ে এলেন নেহা

ছোটবেলা থেকে স্বপ্ন দেখতেন সারা পৃথিবী ঘুরবেন। কল্পনায় ভর করে চলে যেতেন বইয়ের পাতায় দেখা সুন্দর জায়গাগুলোয়। স্কুলে সব বন্ধুরা যখন গল্প করত যে গরমের ছুটিতে কোথায় ঘুরতে গিয়েছিল তখন চুপ করে শোনা ছাড়া আর কোন উপায় ছিল না মেয়েটার। কারণ যত ইচ্ছাই থাকুক না কেন, ছোটবেলা থেকে কোনদিনই বাবা-মার সঙ্গে ঘুরতে যেতে পারেনি মেয়েটি। তার একমাত্র কারণ ছিল তার বাবা-মায়ের শারীরিক প্রতিবন্ধকতা। এক-দুবার ঘুরতে গিয়েছিলেন পরিবারের সঙ্গে। কিন্তু সর্বদাই তাকে আর তার পরিবারকে নানা সমস্যায় পড়তে হয়েছে। সাহায্যের পরিবর্তে শুধুমাত্র সমবেদনাই জানিয়েছে সবাই। তাই একসময় ঘুরতে যাওয়ার সাহসই হারিয়ে ফেলেছিলেন দিল্লির নেহা অরোরা। কিন্তু জীবনযুদ্ধে হারার পাত্রী নন তিনি। তার মতো যাতে অন্য কেউ এই পরিস্থিতির শিকার না হন তাই নিজের কর্পোরেট চাকরি ছেড়ে ট্রাভেল এজেন্সি খুলেছেন নেহা। নাম দিয়েছেন 'প্ল্যানেট অ্যাবলেড'। তবে এটা কোন সাধা
তিন নারীকে সম্মাননা দিল সিলেট উইমেন্স চেম্বার

তিন নারীকে সম্মাননা দিল সিলেট উইমেন্স চেম্বার

তিন নারী উদ্যোক্তাকে বিশেষ সম্মাননা দিয়েছে সিলেট উইমেন্স চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ। নির্ভীক নারী উদ্যোক্তা হিসেবে সাংবাদিক বিলকিস আক্তার সুমি, তরুণ নারী উদ্যোক্তা হিসেবে রন্ধন শিল্পী সাবরিনা খান ও সৃজনশীল নারী উদ্যোক্তা হিসেবে কণ্ঠশিল্পী লাভলী দেবকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। প্রতিষ্ঠানটির আয়োজনে নগরীর পুলিশ লাইনস উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গতকাল শুক্রবার বসন্ত উৎসব ১৪২৩ অনুষ্ঠিত হয়। এই উৎসবেই সকালে তিন নারী উদ্যোক্তার হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জাতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ড. এ কে আব্দুল মোমেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড.এ কে মোমেন বলেন, পুরুষের পাশাপাশি নারীরা এক সাথে কাজ করলে দেশ ও সমাজ এগিয়ে যাবে। নারীদের কাজে পুরুষদের সহায়তার আহ্বান জানান তিনি। মমতাজ হারবাল প্রডাক্টের সহায়তায় দিনব্যাপী আয়োজিত উৎসবে নারী উদ্যোক্তাদের রকমার