এপ্রিল ১০, ২০২০ - Women Words

Day: এপ্রিল ১০, ২০২০

ব্রিটেনে শিশু বিষয়ক ছায়ামন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন টিউলিপ

ব্রিটেনে শিশু বিষয়ক ছায়ামন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন টিউলিপ

ব্রিটেনের লেবার পার্টিতে শিশু বিষয়ক ছায়ামন্ত্রী হিসাবে নতুন দায়িত্ব পেয়েছেন ব্রিটিশ বাংলাদেশি এমপি, জাতির পিতার নাতনি ও শেখ রেহানা মেয়ে টিউলিপ সিদ্দিক। টিউলিপ সিদ্দিক এর আগে চলতি বছরের জানুয়ারিতে লেবার পার্টির প্রাক প্রাথমিক ছায়ামন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। এবার অতিরিক্ত শিশু বিষয়ক ছায়ামন্ত্রীর দায়িত্ব লাভ করেছেন তিনি। টিউলিপ সিদ্দিক বলেছিলেন, ‘আমি অ্যাঞ্জেলা রায়নার ছায়া শিক্ষা দলের অংশ হিসাবে বছরের শুরু থেকে ছায়া মন্ত্রী নিযুক্ত হতে পেরে আনন্দিত। শৈশবকালীন পড়াশোনা শিশুর বিকাশের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ, সুবিধাবঞ্চিত ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে অনেকের এমনকি স্কুল শুরু করার আগেই পিছিয়ে পড়ে। যাতে না ঘটে তা নিশ্চিত করতে আমার সহকর্মীদের সাথে আমি কাজ করার আশা করি। টিউলিপ সিদ্দিক ২০১৭ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত শিশু যত্ন ও প্রাথমিক শিক্ষার জন্য সর্বদলীয় সংসদীয় গোষ্ঠীর সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন।
না ফেরার দেশে ভাষাসৈনিক সুফিয়া আহমেদ

না ফেরার দেশে ভাষাসৈনিক সুফিয়া আহমেদ

দেশের প্রথম নারী জাতীয় অধ্যাপক, ভাষা সৈনিক ও একুশে পদকপ্রাপ্ত ড. সুফিয়া আহমেদ আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর। গতকাল (৯ এপ্রিল) রাতে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তিনি এক পুত্র সৈয়দ রেফাত আহমেদ (হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি), এক কন্যা ডা. রাইনা আহমেদ, তিনজন নাতি-নাতনি রেখে গেছেন ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠায় ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠীর ১৪৪ ধারা ভেঙে যে মিছিল বের হয়, তার অগ্রসেনানী ছিলেন সুফিয়া আহমেদ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সান্ধ্য আইন জারির প্রতিবাদে মিছিলকারী নারীদের মধ্যেও তিনি ছিলেন অগ্রগণ্য। তিনি তত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার সৈয়দ ইশতিয়াক আহমেদের স্ত্রী এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও বিচারপতি মুহাম্মদ ইব্রাহিমের কন্যা। দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠে ইসলামে
নুসরাত হত্যার এক বছর, দ্রুত রায় কার্যকর চায় পরিবার

নুসরাত হত্যার এক বছর, দ্রুত রায় কার্যকর চায় পরিবার

ফেনীর সোনাগাজীতে আলোচিত নুসরাত হত্যা মামলার এক বছর পূর্ণ হয়েছে। ২০১৯ সালের ১০ এপ্রিল ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে যৌন নিপীড়নের পর আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) নুসরাতের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, এখনও পুলিশ তাদের বাড়িটিতে পাহারা বসিয়ে নুসরাতের পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা দিয়ে আসছেন। বাড়িতে এখনো চাঞ্চল্য ফেরেনি। এখনও নুসরাতের বাবা, মা ও দুই ভাই তার স্মৃতি রোমন্থন করে হাউমাউ করে কেঁদে ওঠেন। নুসরাতের পরিবারের সদস্য, পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, ২০১৯ সালের ২৭ মার্চ সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলা কর্তৃক যৌন নিপীড়নের শিকার হন নুসরাত জাহান রাফি। ওই ঘটনায় তার মা বাদী হয়ে অধ্যক্ষ সিরাজকে একমাত্র আসামি করে মামলা করেন। একই দিনই পুলিশ সিরাজকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায়। মামলাট