মুখোশ পরে মহিলা দলের ওপর নারী কাউন্সিলরের হামলা! | | Women Words

মুখোশ পরে মহিলা দলের ওপর নারী কাউন্সিলরের হামলা!

চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা দলের দুটি ওয়ার্ড কমিটিতে নিজের অনুসারীদের গুরুত্বপূর্ণ পদে আনতে পারেননি। তাই বিরোধীপক্ষের ওপর মুখোশ পরে হামলার অভিযোগ ওঠেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মহিলা কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম মনির বিরুদ্ধে। এতে নয়জন আহত হয়েছেন। গতকাল বিকালে নগরীর কাজির দেউড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মনোয়ারা বেগম মনি চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা দলের সভাপতি। গত বছরের অক্টোবরে একটি জনসভায় নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের পক্ষে প্রকাশ্যে বক্তব্য দিলে দল থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়। ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয় সহসভাপতি ফাতেমা বাদশাকে। গতকাল হামলায় আহত নয়জনই ফাতেমা বাদশার অনুসারী।

ফাতেমা বাদশার দাবি, মনি নিজেই মুখোশ পরে অনুসারীদের ওপর দলবল নিয়ে পরিকল্পিতভাবে চড়াও হয়েছেন। তবে মনোয়ারা বেগম মনি বলছেন, হামলার ঘটনা তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র।

জানা গেছে, হামলায় নগর মহিলা দলের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলজার বেগম, জামালখান ওয়ার্ডের সভানেত্রী মরজিনা বেগম, কোতোয়ালি থানার সহসভাপতি খালেদা বেগম, মহিলা দলনেত্রী জাহেদা সোলতানা, তাসলিমা আখতার, আনোয়ারা জাহান, নুরজাহান বেগম, হাজেরা বেগম আহত হন।

ফাতেমা বাদশা আমাদের সময়কে বলেন, সম্প্রতি বাগমনিরাম ও জামালখান ওয়ার্ড কমিটি গঠন হয়েছে। গতকাল একটি মতবিনিময় সভায় যাচ্ছিলাম। পথেই হামলা হয়। এ সময় আমার কর্মীরা একজনকে ধরে মুখোশ খুলে দেখেন তিনি মনোয়ারা বেগম মনি।

মনোয়ারা বেগম বলেন, গতকাল বাগমনিরাম ও জামালখান ওয়ার্ডের অনুষ্ঠান ছিল। সেখানে ঝাউতলা এলাকার নারীরা আসছেন। এ নিয়ে আমার এলাকার মেয়েদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়েছে। আমি করপোরেশনের কাজে ব্যস্ত ছিলাম। আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার হচ্ছে। তিনি বলেন, আমার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার হচ্ছে। সব প্রক্রিয়া প্রায় সম্পন্ন হয়েছে। এটা জেনেই মূলত তারা সবাই ষড়যন্ত্র করছে। সূত্র : আমাদের সময় অনলাইন