অভিনেত্রী সাদাফকে পুলিশের মারধরের অভিযোগ অস্বীকার - Women Words

অভিনেত্রী সাদাফকে পুলিশের মারধরের অভিযোগ অস্বীকার

ভারতের উত্তর প্রদেশে বিক্ষোভের সময় অভিনেত্রী সাদাফ জাফরকে পুলিশ মারধর করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তার পরিবার ও পরিচালক মীরা নায়ার অভিযোগ করেছেন, তাকে আটকের পর কারাগারেও পিটিয়েছে নিরাপত্তা বাহিনী। গত ১৯ ডিসেম্বর লক্ষ্ণৌতে বিক্ষোভে অংশ নিয়ে ফেসবুক লাইভ করার সময় তাকে আটক করা হয়। সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) অভিনেত্রীকে নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করে পুলিশ।

ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধন আইন (সিএএ) পাস হওয়ার পর আইনটিকে বৈষম্যমূলক উল্লেখ করে বিক্ষোভ চলছে দেশটির বিভিন্ন রাজ্যে। এরপর গত ১৯ ডিসেম্বর দেশটির উত্তর প্রদেশে সহিংস বিক্ষোভ হয়। এতে ওইদিন তিনজন ও পরে ১২ জন নিহত হয়। ওই বিক্ষোভে অংশ নিয়ে অভিনেত্রী ও অ্যাক্টিভিস্ট জাফর ফেসবুক লাইভ করছিলেন। লাইভ ভিডিওতেই দেখা যায়, সাদাফ জিজ্ঞাসা করছেন, কেন যারা পাথর ছুড়ছে তাদের আটক করছেন না। তাদের কেন থামাচ্ছেন না। সে সময় ওই অভিনেত্রীকে আটক করা হয়।

জাফরের পরিবার পরে অভিযোগ করেছে, আটকের পর তাকে স্থানীয় থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় কারাগারে। তার বোন নাহিদ বলেন, ‘জাফরের পেটে লাথি মারা হয়েছে। মারধর করা হয়েছে। তিনি যন্ত্রণায় ছটফট করছিলেন।’

পরিচালক মীরা নায়ার জানিয়েছেন, উত্তর প্রদেশের রাজধানীতে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদে সামিল হয়েছিলেন সাদাফ। সেখান থেকেই তাকে আটক করে পুলিশ। এক টুইটবার্তায় তিনি লিখেছেন, ‘এই হলো আমাদের নতুন ভারত। লক্ষ্ণৌতে শান্তি বজায় রেখে প্রতিবাদ করায় তাকে আটক করা হলো এবং মারধর করা হলো। তার মুক্তির দাবিতে আমার সঙ্গে যোগ দিন।’

মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করে উত্তর প্রদেশ পুলিশ বলেছে, জাফরের বিরুদ্ধে সহিংসতার যথেষ্ট প্রমাণ আছে। টুইটারে পুলিশ অফিসার সুরেশ চন্দ্র রাউত লিখেছেন, ‘যারা অশান্তি সৃষ্টি করছিল, জাফর তাদের সঙ্গে ছিলেন। যেখানে সহিংসতা হচ্ছিল, সেখান থেকেই তিনি গ্রেফতার হয়েছেন। আমরা নিয়ম মেনে তার ডাক্তারি পরীক্ষা করিয়েছি। পুলিশের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হচ্ছে, তার কোনও ভিত্তি নেই।’

মীরা নায়ারের পরবর্তী ছবি ‘আ সুইটেবল বয়’ ছবিতে অভিনয় করেছেন সাদাফ জাফর। এই ছবিতেই রয়েছেন তব্বু ও ঈশান খট্টর।