ডিসেম্বর ৮, ২০১৯ - Women Words

Day: ডিসেম্বর ৮, ২০১৯

মিথিলা-ফাহমির ছবি ফেসবুক থেকে সরানোর নির্দেশ

মিথিলা-ফাহমির ছবি ফেসবুক থেকে সরানোর নির্দেশ

ফেসবুক, ইন্টারনেট ও বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকে অভিনেত্রী মিথিলা ও ফাহমির অন্তরঙ্গ এবং ব্যক্তিগত সব ছবি দ্রুত সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রুম্পার ব্যক্তিগত ছবিও সরাতে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। বিটিআরসিকে এ নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। -সংক্রান্ত এক আবেদনের শুনানি নিয়ে রোববার হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে আজ রিটের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার তাহসিনা তাসনিম মৃদু। এর আগে গত বৃহস্পতিবার ফেসবুক, ইন্টারনেট ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল থেকে অভিনেত্রী মিথিলা ও ফাহমির সব অন্তরঙ্গ ছবি না সরানোর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট করা হয়। ব্যারিস্টার তাহসিনা তাসনিম মৃদু জনস্বার্থে নিজেই রিটটি দায়ের করেন। রিটে তথ্যপ্রযুক্তি সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, বিটিআর
সম্পর্ক নিয়ে বিরোধ থেকেই রুম্পাকে ছাদ থেকে ফেলে দেন সৈকত!

সম্পর্ক নিয়ে বিরোধ থেকেই রুম্পাকে ছাদ থেকে ফেলে দেন সৈকত!

রাজধানীর স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পার সঙ্গে  প্রেমের সম্পর্কের ইতি টানতে চেয়েছিলেন সৈকত। এ নিয়ে দু’জনের মধ্যে বিরোধ দেখা দিলে সৈকত তার সহযোগীদের নিয়ে রুম্পাকে সিদ্ধেশ্বরীর সেই বাসার ছাদে নিয়ে যান। এক পর্যায়ে তাকে ওই ছাদ থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন। রুম্পার মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় সৈকতকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে এমন সন্দেহ হচ্ছে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি)। এ কারণে সৈকতকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার সাত দিনের রিমান্ড চেয়েছিল ডিবি। তবে তার চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রুম্পার রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির রমনার জোনাল টিমের পরিদর্শক শাহ মো. আকতারুজ্জামান ইলিয়াস। ঘটনার প্রাথমিক তদন্তের বিষয়ে তিনি আদালতকে জানান, রুম্পা ও সৈকতের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু দিন দিন তাদের সম্পর্কে অবনতি ঘটে। ৪ ডিসেম্বর বিকেলে তারা স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির বাইরে
অপরাধীদের নাম বলে গেলেন আরেক নির্ভয়া

অপরাধীদের নাম বলে গেলেন আরেক নির্ভয়া

ধর্ষণ মামলার শুনানিতে অংশ নিতে যাওয়ার পথে অভিযুক্তদের দেওয়া আগুনে পুড়ে দগ্ধ হন ২৩ বছর বয়সী এক ভারতীয় নারী। দুদিন ধরে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে অবশেষে মারা গেলেন উত্তরপ্রদেশের উন্নাও জেলার সেই নারী। শুক্রবার রাত ১১টা ৪০ নাগাদ দিল্লির সফদরজং হাসপাতালে মৃত্যু হয় তার। মৃত্যুর আগে দিল্লির বাসে গণধর্ষণের শিকার হওয়া নির্ভয়ার মতো পুলিশের কাছে ঘটনার বিস্তারিত বিবরণ এবং আক্রমণকারীদের শনাক্ত করে গেছেন ওই নারী। ২০১২ সালে দিল্লির বাসে গণধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন এক মেডিক্যাল শিক্ষার্থী। এ ঘটনায় তুমুল প্রতিরোধ তৈরি হয় দেশজুড়ে। গণমাধ্যমের কাছে ওই নারী ‘নির্ভয়া’ পরিচয় পেয়েছিলেন। মৃত্যুর আগে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নির্ভয়া তার ওপর নির্যাতন ও নির্যাতকদের বর্ণনা দিয়ে গিয়েছিলেন। ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, ওই নারী গত মার্চে তার গ্রামের দুই পুরুষের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছিলেন। শুনানির জন্য গত বৃহস্পতিবা
রুম্পা হত্যা মামলায় আটক ১

রুম্পা হত্যা মামলায় আটক ১

রাজধানীর স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী রুবাইয়াত শারমিন রুম্পার রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় দায়ের হত্যা মামলায় আব্দুল রহমান সৈকত নামে এক যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। শনিবার (৭ ডিসেম্বর) রাতে এই তথ্য জানান ডিএমপির উপ কমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান। তিনি বলেন, সৈকতকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে ডিবি দক্ষিণ বিভাগের রমনা জোনাল টিম। রমনা থানা সূত্রে জানা গেছে, সৈকতের সঙ্গে রুম্পার সম্পর্ক ছিল, যা এ বছরের শুরুতে হয়। আবার সৈকতের অনাগ্রহের কারণে মার্চের শেষ দিকে সম্পর্কটা ভেঙে যায়। এরপর থেকে রুম্পা বহুবার সৈকতের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন এবং তাকে সম্পর্কে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। কিন্তু সৈকত তাকে ফিরিয়ে দিয়েছেন। রুম্পা গত বুধবার (৪ ডিসেম্বর) রাজধানীর শান্তিবাগের বাসা থেকে বের হন সন্ধ্যা ৫টার দিকে। আর রাত পৌনে ১১টার দিকে বাসা থেকে আধা কিলোমিটার দূরে সিদ্ধেশ্বরী সার্ক