সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৯ - Women Words

Day: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৯

বাল্যবিয়ে দিতে চাওয়ায় ছাত্রীর আত্মহত্যা, শুনে মায়ের মৃত্যু

বাল্যবিয়ে দিতে চাওয়ায় ছাত্রীর আত্মহত্যা, শুনে মায়ের মৃত্যু

পিরোজপুর জেলার ইন্দুরকানীতে ইচ্ছের বিরুদ্ধে বাল্যবিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করায় আত্মহত্যা করেছে এক স্কুলছাত্রী। এ খবরে স্ট্রোক করে মৃত্যু হয়েছে মায়ের। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার উত্তর বালিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, উপজেলার উত্তর বালিপাড়া গ্রামের জব্বার বেপারীর মেয়ে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী রেশমা আকতারের (১২) সঙ্গে একই গ্রামের মোতালেব চৌকিদারের ছেলে শফিকুল ইসলামের এক মাস আগে বিয়ে ঠিক হয়। রেশমা এ বিয়েতে রাজি না হওয়ায় পরিবারের সঙ্গে প্রায় ঝগড়া হতো। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকেলে মা মিনারা বেগম রেশমাকে মাঠ থেকে হাঁস আনতে বললেও রেশমা মায়ের কথা না শুনে ঘরে বসে থাকে। এ নিয়ে মায়ের সঙ্গে রেশমার কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে মা রাগ করে রেশমাকে জুতাপেটা করেন। পরে রেশমা ক্ষোভে ঘরে থাকা কীটনাশক পান করে। স্বজনরা টের পেয়ে তাকে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১১টায় রেশম
সখীপুরে অপহরণ করে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

সখীপুরে অপহরণ করে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা

টাঙ্গাইলের সখীপুরে ষষ্ঠ শ্রেণির স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে বাবুল হোসেন নয়ন (২৪) নামের এক তরুণের বিরুদ্ধে। বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) মেয়েটি উদ্ধার হলে রাতেই মেয়েটির মা বাদী হয়ে নয়নসহ তিন জনকে আসামি করে সখীপুর থানায় অপহরণ ও ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেন। মামলা ও ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, ওই ছাত্রীকে ২১ সেপ্টেম্বর সকালে রাস্তা থেকে প্রতিবেশী বাবুল হোসেন নয়ন ও তার সঙ্গীরা গাড়িতে উঠিয়ে নেয়। পরে তাকে কক্সবাজার নিয়ে এক হোটেলে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। ২৫ সেপ্টেম্বর সকালে মেয়েটিকে টাঙ্গাইল ডিসি লেকে রেখে পালিয়ে যায় নয়ন। পরে মেয়েটি তার মাকে মোবাইল ফোনে বিষয়টির বিস্তারিত জানালে পুলিশের সহায়তায় তাকে উদ্ধার করা হয়। সখীপুর থানার ওসি (তদন্ত) এএইচ এম লুৎফুল কবির বলেন, ‘এই ঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামি বাবুল হোসেন নয়নসহ অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে ‘বৃহস্পতিবার টাঙ্
শিক্ষকের যৌন হয়রানির জেরে জাবি ছাত্রীর আত্মহনন চেষ্টা

শিক্ষকের যৌন হয়রানির জেরে জাবি ছাত্রীর আত্মহনন চেষ্টা

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে তার বিভাগের এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আত্মহত্যারও চেষ্টা করেন ওই ছাত্রী। যৌন হয়রানির বিচার দাবি করে বিভাগের সভাপতি বরাবর একটি অভিযোগপত্রও দিয়েছেন তিনি। অভিযুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সানওয়ার সিরাজের বক্তব্য বারবার চেষ্টা করেও জানা যায়নি। বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক নাসরিন সুলতানা জানান, গত ১৯ সেপ্টেম্বর ওই ছাত্রী যৌন হয়রানির বিচার চেয়ে একটি লিখিত অভিযোগ করেছে। তিনি তা গত ২৫ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়নবিরোধী সেলে পাঠিয়েছেন। এ ঘটনা তদন্তে বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক রাশেদা আখতারকে প্রধান করে সাত সদস্যের কমিটি করা হয়েছে। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের 'যৌন নিপীড়নবিরোধী সেলের প্রধান অধ্যাপক রাশেদা আখতার বলেন, তিনি অভিযোগপত্রটি পেয়েছেন।
কাঠের দরজায় মেয়েটি লিখে গেলো ‘সরি আম্মা’

কাঠের দরজায় মেয়েটি লিখে গেলো ‘সরি আম্মা’

উদ্ধারকারীরা তাকে সেফ হোমে নিয়ে যেতে এলেন যখন ১২ বছরের মেয়েটি তখন তাড়াহুড়ো করে কাঠের দরজায় লিখতে পেরেছিল ‘সরি আম্মা’। গত দু’বছর ধরে তার উপর যে অমানুষিক অত্যাচার চলছিল, তার সমাপ্ত হলো এর মধ্যে দিয়ে। এ দুই বছরে অন্তত ৩০ জনের বিছানায় যেতে তাকে বাধ্য করেছিল তার বাবা। মর্মান্তিক এ ঘটনা ঘটেছে ভারতের কেরালার মলপ্পুরমে। আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তার ওপর নির্যাতন শুরু হয়েছিল, যখন বয়স মাত্র ১০ বছর। বেকার বাবার উপার্জনের সহজ রাস্তা ছিল স্ত্রী ও ১২ বছরের মেয়েকে যৌন ব্যবসায় নামিয়ে দেয়া। দিনের পর দিন নির্যাতনের শিকার হতো স্ত্রী-মেয়ে, আর কাঁচা টাকায় হাত ভরাত বাবা। এভাবেই চলছিল। সম্প্রতি জানাজানি হয়ে যাওয়ায় ওই নাবালিকাকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয়েছে মেয়েটির বাবা এবং বাবার দুই বন্ধুকে। দু’কামরায় ছোট কাঠের ঘরের একটা কামরায় মেয়ে থাকত। পাশের ঘরে তার বাবা-মা। যখনই টাকায় টান পড়ত কাউকে ন