সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯ - Women Words

Day: সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯

দেশে প্রতিদিন গড়ে আত্মঘাতী হচ্ছেন ৩০ জন

দেশে প্রতিদিন গড়ে আত্মঘাতী হচ্ছেন ৩০ জন

সারা পৃথিবীর মতো বাংলাদেশেও প্রতিবছর বাড়ছে আত্মহনন ও আত্মহত্যা চেষ্টার মতো সামাজিক সমস্যা। কিন্তু বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে আত্মহত্যাকে মানসিক অসুস্থতার চেয়ে বড় অপরাধ হিসেবে চিহ্নিত করা হচ্ছে। যার ফলে আত্মহত্যা প্রবণতা হ্রাস করা যাচ্ছে না। পরিসংখ্যান বলছে, দেশে প্রতিদিন গড়ে ৩০ জন আত্মহত্যা করেন। আর প্রায় ৬৫ লাখ মানুষ রয়েছেন যারা আত্মহত্যাপ্রবণ। এমন পরিস্থিতিতেই অন্যান্য দেশের মতো আজ বাংলাদেশেও পালিত হবে বিশ্ব আত্মহত্যা প্রতিরোধ দিবস। এ বছর দিবসের প্রতিপাদ্য ‘আত্মহত্যা প্রতিরোধে কাজ করি একসাথে’। ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন ফর সুইসাইড প্রিভেনশন ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রতিবছর যৌথভাবে দিবসটি পালন করে। জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য সংস্থার পরিসংখ্যান বলছে, বাংলাদেশে ১৪ থেকে ২৯ বছর বয়সীদের মৃত্যুর দ্বিতীয় বৃহত্তম কারণ আত্মহত্যা। গত বছর দেশে ১১ হাজার ৯৫ জন আত্মহত্যা করেন। যা ২০১৭ সালে ছিল ১১ হাজার ৬৫
ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে তুলে নিয়ে ‘গণধর্ষণ’

ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে তুলে নিয়ে ‘গণধর্ষণ’

লক্ষীপুর জেলার রায়পুরে মামার বাড়ি যাওয়ার পথে ষষ্ঠ শ্রেণির এক ছাত্রীকে তুলে নিয়ে তিনদিন আটকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তিন যুবকের বিরুদ্ধে। গত শুক্রবার এই ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত যুবকরা হলেন রাজিব, রাকিব ও হৃদয়। গত রবিববার বিকেলে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য লক্ষীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. তোতা মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়েছে। ওসি আরও জানান, এ ঘটনায় প্রধান আসামি রাজিবকে আটক করা হয়েছে। অভিযুক্ত বাকি আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে।
১৩ ছাত্রীর চুল কর্তন করলেন প্রধান শিক্ষিকা!

১৩ ছাত্রীর চুল কর্তন করলেন প্রধান শিক্ষিকা!

শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার একটি স্কুলের ১৩ ছাত্রীর চুল কেটে দিয়েছেন প্রধান শিক্ষিকা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হওয়া পর্যন্ত ভুক্তভোগী ছাত্রীরা স্কুলে যাবেন না বলে প্রতিজ্ঞা করেছে। গত বৃহস্পতিবার উপজেলার ডিএম খালী ইউনিয়নের ২৯ নম্বর উকিলকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। স্কুলের ওই প্রধান শিক্ষিকার নাম কবরী গুপ্তা। চুল কেটে দেওয়া ওই ১৩ ছাত্রীর সবাই পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। ভুক্তভোগী ছাত্রীরা জানায়, ‌ঘটনার দিন তারা দুপুর ১২টার আগে বিদ্যালয়ে এসে খেলাধুলা করছিল। খেলাধুলা করতে গিয়ে তখন তাদের চুল এলোমেলো হয়ে যায়। এ সময় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা তাদের ডেকে শ্রেণিকক্ষে নিয়ে যান। সেখানে নিয়ে গিয়ে বিদ্যালয়ের দপ্তরিকে দিয়ে চুল কেটে দেন।তারা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হওয়া পর্যন্ত তারা বিদ্যালয়ে যাবেন না বলে প্রতিজ্ঞা করেছে। ভুক্তভোগী এক
চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

মাদারীপুর পৌরসভায় চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে (১০) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গুরুতর অবস্থায় সদর মডেল থানা-পুলিশ ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় সোমবার সকালে সদর মডেল থানায় মাদারীপুর শ্রমিক ইউনিয়নের পিয়ন হারুন খালাসির ছেলে রনি (২০) নামের এক বখাটের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। পুলিশ ও নির্যাতিতার পরিবার সূত্রে জানা যায়, রোববার রাত ৮টার দিকে ওই শিশু শিক্ষার্থীকে অন্য এক মেয়েকে দিয়ে ডেকে বাড়ির ছাদে নিয়ে যায় পুরান বাসস্ট্যান্ড এলাকার বখাটে রনি। সেখানে নিয়ে ওড়না দিয়ে মুখ ও হাত বেঁধে ওই শিক্ষার্থীকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। এ সময় স্কুলছাত্রীর পরিবারের লোকজন তাকে খুঁজতে বাড়ির ছাদে উঠলে দৌড়ে পালিয়ে যায় রনি। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। স্কুলছাত্রীর মা বলেন, আমার স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে বখাটে রনি যে ক্ষতি করেছে আমি তার কঠো
মিন্নি অসুস্থ

মিন্নি অসুস্থ

বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী থেকে আসামি বনে যাওয়ার পর জামিনে মুক্ত রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি শারীরিক ও মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন। বর্তমানে তিনি অসুস্থ। বাড়িতেই চিকিৎসা চলছে তার। মিন্নির পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, তার উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন। কিন্তু মামলার পরবর্তী তারিখ সন্নিকটে বলে তাকে ভালো কোনো হাসপাতালে ভর্তি করা যাচ্ছে না। পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শর্তসাপেক্ষে জামিন পেয়ে বাড়িতে অবস্থান করছেন মিন্নি। স্মৃতিকাতর ও বিষণ্নতা নিয়ে বরগুনা পৌরসভার মাইঠা এলাকার বাবার বাড়িতে বাবা মোজ্জাম্মেল হোসেন কিশোরের জিম্মায় রয়েছেন তিনি। কারামুক্ত মিন্নির সঙ্গী এখন শারীরিক অসুস্থতা। একপ্রকার মানসিক ভারসাম্যহীন হিসেবে বাবার বাড়িতে জীবনযাপন করছেন তিনি। মিন্নির স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, আগে মিন্নি ছিলেন সদা হাস্যোজ্জ্বল, চঞ্চল ও স্বজনদের সঙ্গে সদালাপী। অনেক স্বজনের মা
কিম কার্দাশিয়ান দুরারোগ্য ও জটিল রোগে আক্রান্ত

কিম কার্দাশিয়ান দুরারোগ্য ও জটিল রোগে আক্রান্ত

কিম কারদাশিয়ান। নাম শুনলেই চোখের সামনে ভেসে উঠে আত্মবিশ্বাসী ও আবেদনময়ী এক নারীর চেহারা। সেই কিম কারদাশিয়ান ভালো নেই। দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। শরীরে বাসা বেঁধেছে জটিল লুপাস ও রিউম্যাটয়েড আরথ্রাইটিস। রক্ত পরীক্ষার ফল জানার পরে 'কিপিং আপ উইথ দ্য কার্দাশিয়ানস' সিজন প্রিমিয়ারের মাঝেই ভেঙে পড়লেন বিশ্বখ্যাত রিয়েলিটি স্টার। বেশ কয়েক মাস ধরেই শরীরে অসহ্য যন্ত্রণা অনুভব করার কথা জানাচ্ছিলেন কিম। মাথাব্যথার পাশাপাশি ফুলতে থাকে তাঁর শরীরের গাঁট এবং দেহ ঘিরে ধরে অসীম অবসন্নতায়। চিকিৎসকের পরামর্শে তাই রক্ত পরীক্ষা করান কিম। সম্প্রতি সেই পরীক্ষার ফলে জানা গিয়েছে, কিম জটিল লুপাস এবং রিউম্যাটয়েড আরথ্রাইটিস রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে এই পরীক্ষার ফলই চূড়ান্ত বলে মানতে চান না কিমের চিকিৎসক ওয়ালেস। তাঁর পরামর্শে এবার তাঁর দুই হাত এবং শরীরের অস্থিসন্ধিগুলো আলট্রাসাউন্ড স্ক্যান করা হবে বলে ঠি