সেপ্টেম্বর ২, ২০১৯ - Women Words

Day: সেপ্টেম্বর ২, ২০১৯

কানাডার বিরোধী দলীয় ডেপুটি হুইপ হলেন সিলেটের ডলি

কানাডার বিরোধী দলীয় ডেপুটি হুইপ হলেন সিলেটের ডলি

কানাডার অন্টারিওর প্রাদেশিক সংসদে বিরোধী দলীয় ডেপুটি হুইপ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এমপিপি (মেম্বার অব প্রভিন্সিয়াল পার্লামেন্ট) ডলি বেগম। তার বাড়ি সিলেটের মৌলভীবাজার জেলায়। তিনি সদর উপজেলার মনুরমুখ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. সুজন মিয়ার নাতনী। তিনি প্রাদেশিক পরিষদে অফিসিয়াল বিরোধী দল এনডিপির ‘আর্লি লানিং অ্যান্ড চাইল্ড কেয়ার ক্রিটিক’ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এই দায়িত্বের অতিরিক্ত হিসেবে তিনি বিরোধী দলীয় ডেপুটি হুইপ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। কানাডায় এই প্রথম কোনো বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রাজনৈতিক এই ধরনের দায়িত্ব পেলেন। ডলি বেগমই প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়ে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রথম জনপ্রতিনিধি হ্ওয়ার ইতিহাস গড়েছিলেন। কনজারভেটিভ প্রিমিয়ার ডাগ ফোর্ডের গণবিরোধী নানা পদক্ষেপের বিরুদ্ধে খোলামেলো বক্তব্য রেখে ডলি বেগম ইতিমধ্যে অন্টারিওর প্রভিন্সিয়াল রাজনীতিতে
আদালতে অভিযোগপত্র : স্ত্রী মিন্নিসহ আসামি ২৪

আদালতে অভিযোগপত্র : স্ত্রী মিন্নিসহ আসামি ২৪

বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় তাঁর স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ২৪ জনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে পুলিশ। রবিবার বিকেলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বরগুনা থানার পরিদর্শক হুমায়ুন কবির অভিযোগপত্রটি জমা দেন। জেলা পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ রোববার বিকেলে এ তথ্য জানানো হয়। তদন্ত কর্মকর্তা বরগুনার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের জেনারেল রেজিস্ট্রার (জিআরও) বাবুল আকতারের কাছে অভিযোগপত্র জমা দেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে কোনো আসামির নাম উল্লেখ করা হয়নি। তবে জেলা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, অভিযোগপত্রে মিন্নিসহ ২৪ জনকে আসামি করা হয়েছে। এর মধ্যে অপ্রাপ্তবয়স্ক আসামির সংখ্যা ১৪ জন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির অভিযোগপত্র জমা দেওয়ার বিষয়টি রবিবার সন্ধ্যায় নিশ্চিত করেছেন। পুলিশ সুপার স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নিরবচ্ছিন্ন ও গভীর তদন্
‘পাঁচ হাজার টাকা নিয়ে মুম্বাই এসেছিলাম’

‘পাঁচ হাজার টাকা নিয়ে মুম্বাই এসেছিলাম’

বলিউডে এখন অন্যতম সফল অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পীদের তালিকায় যাদের নাম উঠে আসে, তাঁদের মধ্যে নোরা ফতেহি অন্যতম। একের পর এক মিউজিক ভিডিওতে তাঁর নাচের পারদর্শীতায় দর্শকদের মন জয় করে নিয়েছেন নোরা। এই সাফল্য সহজে আসেনি। বহু পরিশ্রমের পর বলিউডে পায়ের তলার মাটি শক্ত হয়েছে। সম্প্রতি স্ট্রাগলার হিসাবে কাটানো দিনগুলির দিকে ফিরে তাকিয়ে নস্টালজিক হয়ে পড়েন নোরা ফতেহি। বলেন, 'একদিন মাত্র ৫,০০০ টাকা পকেটে নিয়ে ভারতে এসেছিলাম।' বলিউডে স্থান করে নেওয়া কখনই সহজ নয়। তার উপর একজন কানাডার বাসিন্দা হিসাবে নতুন দেশে এসে মানিয়ে নেওয়া, চলার পথটা সহজ ছিল না কোনওদিনই। বলিউডে কাজ খোঁজার দিনগুলির কথা মনে করতে গিয়ে আবেগঘন নোরা ফতেহি। এক সাক্ষাৎকারে নোরা বললেন, যে এজেন্সির সঙ্গে মুম্বাইতে কাজ করতাম, তারা সপ্তাহে মাত্র ৩০০০ টাকা করে দিত। সেই সীমিত টাকাতেই মুম্বইয়ের মতো শহরে দিনের পর দিন স্ট্রাগল করেছেন আজকের হার্টথ্রব। ক
শরীরে দাগ : আলোচিত-সমালোচিত জারিন

শরীরে দাগ : আলোচিত-সমালোচিত জারিন

ওজন কমালে বা প্রেগন্যান্সির পরে স্ট্রেচ মার্কস অত্যন্ত স্বাভাবিক বিষয়। তবুও তা নিয়ে হীনমন্যতায় ভোগেন অনেক নারী। তারকাদের ক্ষেত্রে আবার অনেকে এই স্ট্রেচমার্কসের কারণে সমালোচনায় শিকার হন। ঠিক যেমনটা হলো অভিনেত্রী জারিন খানের সঙ্গে। শরীরের স্ট্রেচ মার্কসের কারণে সোশ্যল মিডিয়ায় আক্রমণের শিকার হয়েছেন জারিন। তবে এক্ষেত্রে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছেন আনুশকা শর্মা। সম্প্রতি, ইনস্টাগ্রামে নিজের একটি ছবি পোস্ট করেন জারিন। সেখানে জারিনের শরীরের স্ট্রেচ মার্কস নিয়ে তাঁকে ট্রোল করতে থাকেন অনেকেই। যদিও এক্ষেত্রে ট্রোলিং জবাবও দিতে ছাড়েননি জারিন। জারিনের হয়ে মুখ খোলেন তার ভক্তরাও। এক্ষেত্রে জারির সাফ জবাব, ওজন কমানোর পর শরীরে স্ট্রেচ মার্কস অত্যন্ত সাধারণ একটা বিষয়। স্ক্রিনশটের স্ট্যাটাস দিয়ে তাঁকে নিয়ে করা ট্রোলিংয়ের জবাব দেন অভিনেত্রী। পাশাপাশি যাঁরা তাঁকে সমর্থন করেছেন তাঁদের প্রশংসা করতেও ভোলেননি তিনি।
প্রেমিক ও তিন বাংলাদেশী নিয়ে পুলিশের পোশাকে তরুণীর দুর্ধর্ষ ডাকাতি

প্রেমিক ও তিন বাংলাদেশী নিয়ে পুলিশের পোশাকে তরুণীর দুর্ধর্ষ ডাকাতি

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নরেন্দ্রপুরে পুলিশ সেজে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ঘটনায় উঠে এসেছে আরও চাঞ্ল্যকর তথ্য। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাদের তিনজন বাংলাদেশী বলে অভিযোগ রয়েছে। এবার এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দীপা মজুমদার নামে ২২ বছর বয়সী এক তরুণীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জানা গেছে, গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তিদের জেরা করেই জানা যায় দীপার নাম। এই ঘটনার মূলচক্রী সে-ই। দীপার ছকেই সেদিন রাতে ডাকাতি হয়েছিল ব্যবসায়ীর বাড়িতে। ঘটনায় জড়িত দীপার প্রেমিকও। ঘটনার পর থেকেই পালিয়েছে ওই যুবক। গত ১৮ অগাস্ট নরেন্দ্রপুরের নেতাজিনগরের ব্যবসায়ী অরূপ দত্তের বাড়িতে পুলিশ সেজে ডাকাতি করে কয়েকজন দুষ্কৃতিকারী। মাঝরাতে ডাকাতি হয়। সে সময় বাড়িতে ছিলেন তিনি ও তাঁর বৃদ্ধা মা। অভিযোগ, রাত ২টা নাগাদ দরজায় এসে কয়েকজন কড়া নাড়ে। সাড়া না পেয়ে জানলায় ধাক্কা দিতে থাকে তারা। নিজেদের পুলিশ পরিচয় দেয়। ৬ জনের দলে ৩ জন