আগস্ট ১৬, ২০১৯ - Women Words

Day: আগস্ট ১৬, ২০১৯

গোসলের দৃশ্য ধারণ, ছাত্রীর আত্মহত্যা, পরিবার বলছে হত্যা

গোসলের দৃশ্য ধারণ, ছাত্রীর আত্মহত্যা, পরিবার বলছে হত্যা

চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে মোবাইল ফোনে এক কলেজছাত্রীর (২১) গোসলের দৃশ্য ধারণ করার অভিযোগ উঠেছে হাসান পাটওয়ারী (২২) নামের এক বখাটের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় রাগে-ক্ষোভে ওই ছাত্রী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তবে ছাত্রীর পরিবারের দাবি, বখাটে হাসানই তাঁকে হত্যা করে আত্মহত্যার ঘটনা সাজিয়েছেন। গত রবিবার শাহরাস্তি উপজেলার টামটা দক্ষিণ ইউনিয়নের একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় হাসানের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে থানায় মামলা করা হয়েছে। মৃত ছাত্রী চাঁদপুর সরকারি কলেজে স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে পড়তেন। পরিবারের ভাষ্য, ২০১৬ সালে ওই ছাত্রীর সঙ্গে তৌকির আহমেদ নামের এক ব্যক্তির বিবাহ হয়। পরে তৌকির সৌদি আরব চলে যান। তখন থেকে ছাত্রী শাশুড়ির সঙ্গে থাকতেন। রোববার শাশুড়ি ঈদের কেনাকাটা করার জন্য হাজীগঞ্জ বাজারে যান। এ সময় ছাত্রী ঘরের পেছনে টিউবওয়েলে গোসল করছিলেন। তখন তাঁর চাচাতো দেবর হাসান গোপনে ছাত্রীর গোস
ধর্ষিত হলেও প্রতিবাদ করবেন না, ফেসবুকে রুয়েটের শিক্ষক

ধর্ষিত হলেও প্রতিবাদ করবেন না, ফেসবুকে রুয়েটের শিক্ষক

স্ত্রীর লাঞ্ছনার প্রতিবাদ করতে গিয়েছিলেন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের শিক্ষক রাশিদুল ইসলাম। কিন্তু রক্ষা পেলেন না নিজেও। বখাটেদের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন। মারধরের শিকার হয়েছেন। অসহায় অবস্থায় আশেপাশে দাঁড়িয়ে থাকা মানুষগুলোর কাছে সাহাজ্য চেয়েছেন। কিন্তু কোনো ব্যক্তি তাকে সহযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেননি। গত শনিবার রাজশাহী শহরের জনবহুল সাহেববাজার মনিচত্ত্বর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। পরে নিজের ফেসবুক আইডিতে ‘সবাই দাঁড়িয়ে দেখলো, কিন্তু কেউই এলো না এগিয়ে’ শিরোনামে একটি পোস্ট করেন রুয়েট শিক্ষক রাশিদুল ইসলাম। দৈনিক আমাদের সময় অনলাইন পাঠকদের জন্য রাশিদুল ইসলামের ফেসবুক পোস্টটি তুলে ধরা হলো: ‘রাজশাহী শহরে এসব বখাটের কাছে আইন দিন দিন জিম্মি হয়ে পড়ছে। মেনে নিন নয়তো দেশ ছেড়ে চলে যান। এদেশে আপানার চোখের সামনে আপনার মা,বোন অথবা বউ ধর্ষ
বিজেপির রোষাণলে আসামের গবেষক রেহানা

বিজেপির রোষাণলে আসামের গবেষক রেহানা

ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট ম্যাচে পাকিস্তানের জয়ের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি পোস্ট দিয়েছিলেন ২০১৭ সালে। পরবর্তীতে তা ডিলিটও করে দিয়েছিলেন। কিন্তু দুবছর আগের সেই পোস্টের জেরেই এখন বিপাকে আসামের গৌহাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নারী গবেষক। রেহানা সুলতানা নামে ওই গবেষকের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করেছে আসাম পুলিশ। দুবছর আগে ডিলিট করার পরেও একটি পোস্টের জেরে সম্প্রতি দায়ের হওয়া মামলায় কার্যত হতভম্ব ওই গবেষক। যদিও তার দাবি, ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারের তৈরি করা আসামের নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদপড়া বাংলাভাষীদের নাগরিকত্ব ফিরে পাওয়া সংক্রান্ত কাজকর্মে যুক্ত থাকার জন্যই তাঁর বিরুদ্ধে প্রতিহিংসামূলক আচরণ করছে পুলিশ। ওই গবেষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, পাকিস্তানকে সমর্থনসূচক একটি পোস্ট তিনি করেন। বছর দুয়েক আগে ওই পোস্টটি যে তিনি করেছিলেন, সে কথা স্বীকার করেছেন রেহনা। পাশাপাশি এটাও দাবি করেছেন যে, ওই প