অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে শিশুকে বলাৎকার, হাসপাতালে ভর্তি | | Women Words

অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে শিশুকে বলাৎকার, হাসপাতালে ভর্তি

পাবনা সদর উপজেলার আতাইকুলা থানার শ্রীকোল গ্রামে দরিদ্র পরিবারের এক শিশুকে (৮) বলাৎকার করেছে এক বখাটে। শিশুটি ওই গ্রামের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্র। শিশুটিকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বলাৎকারের শিকার শিশুটির বরাত দিয়ে পাবনা থানার ওসি (তদন্ত) আসাদুজ্জামান জানান, বাড়ির পাশের এক বখাটে (২২) ধারালো অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে মাসখানেক আগে একাধিকবার শিশুটিকে বলাৎকার করে। ঘটনাটি কাউকে বললে তাকে এবং তার বাবা-মাকে হত্যা করা হবে বলে ভয় দেখায়। ভয় পেয়ে শিশুটি ঘটনাটি কাউকে বলেনি।

ওসি বলেন, সর্বশেষ গত ২৩ জুলাই ওই বখাটে আবারও বলাৎকার করলে শিশুটি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। ওই দিনই শিশুটির অভিভাবকরা তাকে পাবনা জেনারেল হাসাপাতালে ভর্তি করে। এখনও শিশুটি পাবনা জেনারেল হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

বুধবার সন্ধ্যায় একজন চিকিৎসক শিশুটির অভিভাবকদের জানান, শিশুটিকে বলাৎকার করা হয়েছে এবং সে ভয়ে বিষয়টি কাউকে বলেনি। এরপর শিশুটি তার বাবা-মাকে সব ঘটনা খুলে বললে মিডিয়াকর্মীদের পরামর্শে তারা বিষয়টি পাবনা থানা পুলিশকে জানান।

এ ব্যাপারে শিশুটির বাবা বলেন, আমি গরিব মানুষ। ছেলের চিকিৎসা করাতে অনেক টাকা ব্যয় হয়ে গেছে। তার শরীরে কয়েক ব্যাগ রক্ত দেয়া হয়েছে। মামলা করতে গেলে ওই সন্ত্রাসী আমাদের পরিবারের ক্ষতি করবে।

আতাইকুলা থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, বিষয়টি পাবনা থানার ওসির মাধ্যমে তিনি শুনেছেন এবং সংশ্লিষ্ট স্থানে পুলিশ পাঠিয়েছেন। ঘটনাটি সত্য প্রমাণ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বুধবার রাত ১১টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রক্রিয়া চলছিল। সূত্র : জাগো নিউজ