এবার নেটফ্লিক্সে আসছে ‘নির্ভয়া’র ধর্ষণ


নিউজটি শেয়ার করুন

পাঠক মনে আছে কি ‘নির্ভয়া’ কে? ২৩ বছর বয়সী, প্যারামেডিকেল ছাত্রী। ২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর। ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির ঘটনা। বন্ধুর সঙ্গে সিনেমা দেখে বাড়ি ফিরছিল মেয়েটি। পথে চলন্ত বাসে গণধর্ষণের শিকার হন ‘নির্ভয়া’।

গণধর্ষণের পরও চলে অকথ্য শারীরিক নির্যাতন। এরপর নির্ভয়া ও তাঁর বন্ধুকে চলন্ত বাস থেকে রাস্তায় ছুড়ে ফেলা দেওয়া হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। কিন্তু অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় নির্ভয়াকে নেওয়া হয় সিঙ্গাপুরে। সেখানেই হাসপাতালে মারা যান তিনি। এই ঘটনার পর দেশ-বিদেশজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় বয়ে যায়। বিক্ষোভ চলতে থাকে রাজধানী দিল্লিসহ দেশের নানা প্রান্তে। প্রাথমিকভাবে তাঁর (জ্যোতি) নাম-পরিচয় গোপন রাখা হয়। ‘নির্ভয়া’ বা ‘দামিনী’ নামেই তাঁর উল্লেখ করা হয় সংবাদমাধ্যমে। পরে প্রকাশ্যে আসেন তাঁর মা-বাবা। মেয়ের নাম-পরিচয়ও জানান তাঁরা।

‘যারা আমাকে নির্যাতন করেছে, তাদের ছাড় দেবেন না।’—ভারতে ২০১২ সালের ডিসেম্বরে চলন্ত বাসে গণধর্ষণের শিকার তরুণ ছাত্রী নির্ভয়া মৃত্যুর আগে এই কথাগুলো বলেছিলেন পুলিশ কর্মকর্তা ছায়া শর্মাকে। ওই ঘটনা তদন্তের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন নারী পুলিশ কর্মকর্তা ছায়া শর্মা। আর ‘নির্ভয়া’র বাবা বলেন, এই অপরাধীদের ফাঁসিতে ঝোলানো উচিত। এ রকম বর্বর অপরাধের ঘটনা আর নেই।

২০১৩ সালের মার্চ মাসে তিহার কারাগারে বিচার চলাকালে বাসচালক রাম সিংয়ের লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। অপরাধী বিনয় শর্মাও আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। ভয়ংকর এই ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত আরেক অপরাধীকে কিশোর বিবেচনায় ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে সংশোধনাগারে পাঠানো হয়। কিশোর অপরাধীদের জন্য প্রযোজ্য আইন অনুসারে তার সর্বোচ্চ সাজা হয় তিন বছর। এ নিয়ে বিতর্ক ওঠে। পরে গর্হিত অপরাধের দায়ে ১৬ থেকে ১৮ বছরের অপরাধীদের প্রাপ্তবয়স্ক বিবেচনা করে শাস্তির বিধান রাখা হয়।

‘২০১৩ সালে বিচারিক আদালতের রায়ে চার অপরাধীকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়। হাইকোর্টেও এই রায় বহাল থাকে। তবে আদালতের এই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন চার অপরাধী অক্ষয় ঠাকুর, বিনয় শর্মা, পবন গুপ্ত ও মুকেশ। পরে গণধর্ষণের দায়ে দোষী সাব্যস্ত চারজনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ বহাল রেখেছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট।

এবার সেই ঘটনা দেখা যাবে নেটফ্লিক্সের নতুন ওয়েব সিরিজে। এই সিরিজের নাম ‘দিল্লি ক্রাইম’। এরই মধ্যে ওয়েব সিরিজের ট্রেলার এসেছে। তাতে অভিনয় করছেন শেফালি শাহ, রসিকা দুগ্গল, রাজেশ তাইলাং, আদিল হুসেন, গোপাল দত্ত, বিনোদ শেরাওয়াতসহ অনেকে। এখানে শেফালি শাহ অভিনয় করছেন ডিসিপি (সাউথ) ভর্তিকা চতুর্বেদীর ভূমিকায়। এই ওয়েব সিরিজে তিনি ‘নির্ভয়াকাণ্ড’ তদন্ত করেন, অপরাধীদের আইনের আওতায় নিয়ে আসেন এবং বিচার নিশ্চিত করেন।

ওয়েব সিরিজটি পরিচালনা করছেন ইন্দো-কানাডিয়ান চিত্রপরিচালক রিচি মেহতা। ২২ মার্চ থেকে নেটফ্লিক্সে দেখা যাবে ‘দিল্লি ক্রাইম’।

সূত্র: প্রথম আলো

 

এই বিভাগের আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *