পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে ঢুকে ভারতের অভিযান - Women Words

পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে ঢুকে ভারতের অভিযান

পাকিস্তান সংলগ্ন কাশ্মীর সীমান্তে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। গতকাল বুধবার রাতে এ অভিযান পরিচালনার সময “সন্ত্রাসবাদীদের” ঘাঁটিতে হামলা চালানো হয়েছে বলেও সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

ভারতের ডিরেক্টর জেনারেল অফ মিলিটারি অপারেশনস লেফটেন্যান্ট জেনারেল রনবীর সিং বৃহস্পতিবার দুপুরে দিল্লিতে এক সংবাদ সম্মেলনে এই খবর জানিয়েছেন । ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আর সেনাবাহিনী যৌথভাবে এ  সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

তিনি বলেন, “কাল রাতের ওই হামলায় সন্ত্রাসবাদীদের এবং যারা তাদের মদত দিচ্ছিল, তাদের উল্লেখযোগ্য ক্ষতি হয়েছে, মারা গেছে অনেকে। এই হামলার খবর আমি নিজেই পাকিস্তানের ডিজিএমও-কে ফোন করে আজ সকালে জানিয়েছি।”

রনবীর সিং জানান, এই অভিযান ইতিমধ্যেই শেষ হয়েছে এবং এ ধরণের হামলা এখনই আবারও চালানোর কোনও পরিকল্পনা নেই।

ভারতীয় এই সেনা কর্মকর্তা বলেন,  তারা গতকাল নির্দিষ্ট তথ্য পান যে নিয়ন্ত্রণ রেখার পাকিস্তানী অংশের ভেতরে কয়েকটি জায়গায় “সন্ত্রাসবাদীরা” তৈরি হয়েছে ভারতে ঢোকার জন্য। তাদের পরিকল্পনা ছিল জম্মু-কাশ্মীর আর ভারতের অন্যান্য রাজ্যে হামলা চালানোর।

সংবাদ সম্মেলনে কোনও সাংবাদিককে প্রশ্ন করতে দেওয়া হয় নি।

বৃহস্পতিবার টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এনডিটিভি অনলাইনের প্রতিবেদনে জানানো হয়,
পাকিস্তান সংলগ্ন কাশ্মীর সীমান্তে গোলযোগপূর্ণ নিয়ন্ত্রণরেখায় (এলওসি) গতকাল বুধবার রাতে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

এএফপির খবর থেকে জানা যায়, ভারতীয় সেনাসূত্র দাবি করেছে, বড় বড় শহরে পরিকল্পিত ধারাবাহিক হামলা ঠেকাতেই এই হামলা চালানো হয়েছে। এ অভিযানের নিন্দা জানিয়েছে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী। তারা বলছে, ভারত বিনা ‘উসকানিতে’ নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর এই হামলা চালিয়েছে। এতে তাদের দুজন সেনা নিহত হয়।

ভারতীয় সেনাবাহিনীর এই অভিযানকে ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ বলা হচ্ছে । সুনির্দিষ্ট গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে এই ধরনের অভিযানে ভারতে অনুপ্রবেশ ও হামলা চালাতে প্রস্তুত সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর ওপর হামলা চালানো হয়।

অভিযানকালে ভারতীয় পক্ষের কেউ হতাহত হয়নি।

সূত্র: বিবিসি, প্রথম আলো