প্রথম বির্তকে এগিয়ে হিলারি - Women Words

প্রথম বির্তকে এগিয়ে হিলারি

যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে সামনে রেখে দুই প্রার্থীর প্রথম বির্তকে রিপাবলিকান প্রার্থী আবাসন ব‌্যবসায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে পেছনে ফেলেছেন ডেমোক্রেটিক দলীয় প্রার্থী ও সাবেক ফার্স্ট লেডি হিলারি ক্লিনটন।

বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে অনুষ্ঠিত এই বিতর্ক শেষ হওয়ার পরপরই বার্তা সংস্থা সিএনএন-এর জরিপে ট্রাম্পকে পেছনে ফেলেন হিলারি। সিএনএন-এর জরিপে জানানো হয়, ৬২% ভোটার হিলারির পক্ষে এবং ২৭% ট্রাম্পের পক্ষে।

ডেমোক্রেট প্রার্থী সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন প্রথম বির্তকে প্রতিদ্বন্দ্বীকে ঘায়েল করতে চেয়েছেন জাতিগত বিদ্বেষ, লিঙ্গ বৈষম‌্যমূলক আচরণ এবং কর খেলাপের মত অভিযোগ এনে। অন‌্যদিকে রিপাবলিকান প্রার্থী আবাসন ব‌্যবসায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প তার প্রতিপক্ষের মন্ত্রীত্বের দিনগুলোর কাজের সমালোচনা করেছেন, প্রশ্ন তুলেছেন বাণিজ‌্য চুক্তির ক্ষেত্রে তার আন্তরিকতা নিয়ে।

ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের ইরাক যুদ্ধের বিরোধিতা করেন এবং ক্ষমতায় গেলে ইসলামিক স্টেটকে পরাজিত করতে ইরাকের সব তেল তুলে নেয়ার ঘোষণা দেন। উত্তর কোরিয়াকে থামাতে চীনের সাহায্য নেয়ারও আগ্রহ প্রকাশ করেন রিপাবলিকান প্রার্থী।

কয়েক সপ্তাহ আগে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হিলারি প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালনের মত ‘শারিরীক সক্ষমতা’ রাখেন কী না- সে প্রশ্নও তোলেন এ ধনকুবের।

অন্যদিকে হিলারি তার বক্তৃতায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রীয় অবকাঠামোর মধ্যে থাকা ‘বর্ণবাদ’ দমনে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেন। নির্বাচনী প্রচার শুরুর পর ট্রাম্প কেন তার আয়করের খতিয়ান প্রকাশ করেননি তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন হিলারি। রাশিয়ার প্রেসিডেন্টকে ট্রাম্পের ‘শুভাকাঙ্ক্ষী’ আখ‌্যায়িত করে যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে পুতিনকে আমন্ত্রণ জানানোয় রিপাবলিকান প্রার্থীর সমালোচনা করেন সাবেক এ পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বারাক ওবামার জন্ম ‘যুক্তরাষ্ট্রে কী না’ নির্বাচনী প্রচারে এমন প্রশ্ন তোলায় ট্রাম্পের ‍বিরুদ্ধে ‘বর্ণবাদী আচরণের’ অভিযোগ আনেন হিলারি।

নিউইয়র্কের হফস্ট্রা বিশ্ববিদ্যালয়ের মিলনায়তন জমে উঠেছিলো এ বছরের প্রেসিডেন্সিয়াল নির্বাচনের প্রথম এই বিতর্ক। শেষ পর্যন্ত ভোটের হিসেব-নিকেশেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে এই বিতর্ক।

চলতি বছরের ৮ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। সর্বশেষ নির্বাচনী জরিপগুলোতে দুই প্রার্থীর পক্ষে কাছাকাছি জনসমর্থন লক্ষ্য করা গেছে। বিবিসির সর্বশেষ জরিপে হিলারির পক্ষে ৪৮ শতাংশ আর ট্রাম্পের পক্ষে ৪৬ শতাংশ সমর্থনের কথা বলা হয়েছে।