ধর্ষণের দায়ে ৬ জনের মৃত্যুদন্ড - Women Words

ধর্ষণের দায়ে ৬ জনের মৃত্যুদন্ড

নরসিংদীতে এক নারী শ্রমিককে ধর্ষণ ও তা ভিডিও করার দায়ে ছয় আসামিকে মৃত্যুদন্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার নরসিংদীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক শামীম আহাম্মদ এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

রায় ঘোষণার সময় সকল আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন মৃত কুদ্দুছ আলীর ছেলে আশিকুর রহমান (৩৫),সিরাজ শেখের ছেলে রুমিন (২০), তাজুল ইসলামের ছেলে ইলিয়াছ (২১),হানিফের ছেলে রবিন (২০), মন্টু মিয়ার ছেলে ইব্রাহিম (২২) ও ছালাম মিয়ার ছেলে আবদুর রহমান (২৪)।তারা সবাই পলাশ উপজেলার বাগপাড়ার বাসিন্দা।

একইসঙ্গে আশিকুর রহমান, ইলিয়াছ, রুমিন ও রবিনকে ১ লাখ টাকা এবং ইব্রাহিম ও আব্দুর রহমানকে ২ লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়।
এছাড়া  আব্দুর রহমান ও ইব্রাহিমকে পর্ণোগ্রাফি নিয়ন্ত্রন আইনের ৮ ধারায় ৭ বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও আরো ২ লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, প্রাণ আরএফএল কোম্পানিতে কর্মরত এক নারী শ্রমিক (২০) ২০১৩ সালের ২৩ মে বেলা আড়াইটার দিকে কর্মস্থল থেকে কোম্পানির নিজস্ব মেস বাগপাড়া গ্রামে ফিরিছিলেন। জনতা জুটমিল ফটকের সামনে পৌঁছালে আসামিরা তাকে তুলে নির্জন স্থানে নিয়ে যান। তারা সেখানে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। তারা ধর্ষণের দৃশ্য মোবাইল ফোনে ভিডিও করে রাখেন। আসামিরা এরপর তাকে ছেড়ে দেন।

ধর্ষণের শিকার মেয়েটি পরদিন এ ঘটনা প্রাণ আরএফএল কোম্পানির সহকারী ব্যবস্থাপক এএসএম সাদেকুল ইসলামকে জানান। পরে মেয়েটি বাদী হয়ে পলাশ থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পলাশ থানার তৎকালীন এসআই বিপ্লব কুমার দত্ত ২০১৩ সালে ১৫ আগস্ট আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন।