জিজ্ঞাসাবাদের পর্যায়ে হাসনাত-তাহমিদ: ডিএমপি কমিশনার - Women Words

জিজ্ঞাসাবাদের পর্যায়ে হাসনাত-তাহমিদ: ডিএমপি কমিশনার

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার ঘটনায় আবুল হাসনাত রেজাউল করিম ও তাহমিদ হাসিব খান ‘জিজ্ঞাসাবাদের পর্যায়ে’ রয়েছেন বলে জানিয়েছেন ঢাকার পুলিশ কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া। শনিবার নিজের দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক হাসনাত এবং প্রবাসী যুবক তাহমিদকে হলি আর্টিজান বেকারি থেকে উদ্ধারের পর পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দিয়েছে বলে দাবি করে। কিন্তু তাদেরকে নিখোঁজ বলে দাবি করছে তাদের পরিবার।

ওই দুজন কোথায় আছে এ প্রশ্নের জবাবে ডিএমপি কমিশনার বলেন, “সেটা তদন্তকারী দল বলতে পারবে। তাদের জিজ্ঞাসা করেন।”

গুলশানে জঙ্গি হামলার তদন্তে ‘যথেষ্ট অগ্রগতি’ হয়েছে বলে দাবি করেন আসাদুজ্জামান মিয়া। তিনি বলেন,“সন্ত্রাসীরা সবাই দেশি। দেশেই তারা প্রশিক্ষণ নিয়েছে। তবে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক চক্র জড়িত থাকতে পারে, এটা উড়িয়ে দেই না। আমরা সেটা তদন্ত করে দেখছি।”

গুলশান হামলার মতো ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে রাজধানীজুড়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঢেলে সাজানো হয়েছে বলেও দাবি করে তিনি বলেন, “ভবিষ্যতে যাতে এধরনের ঘটনা না ঘটে তার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। যথেষ্ট নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।”

গুলশানে হামলাকারীদের মোকাবেলা করতে গিয়ে নিহত বনানী থানার ওসি মো. সালাউদ্দিনকে নিয়ে বিএনপি-ঘনিষ্ঠ পেশাজীবী নেতা জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বক্তব্যের নিন্দাও জানান আসাদুজ্জামান।

গুলশানের ওই রেস্তোরাঁয় ১ জুলাইয়ের জিম্মি দশার একটি ভিডিওচিত্র প্রকাশের পর হাসনাতের বিরুদ্ধে হামলায় সম্পৃক্ততার সন্দেহের কথা উঠে আসে ফেইসবুকে।

ব্যবসায়ী শাহরিয়ার খানের ছেলে তাহমিদ কানাডার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়েন। গুলশানের ঘটনার একদিন আগে দেশে ফিরে ইফতারের পর বন্ধুদের সঙ্গে তিনি ওই ক্যাফেতে গিয়েছিলেন বলে পরিবারের ভাষ্য।

ঘটনার কয়েকদিন পর আছাদুজ্জামান মিয়া এই দুজনেরও হামলায় সম্পৃক্ততার সন্দেহের কথা জানিয়েছিলেন।

সূত্রঃ বিডিনিউজ২৪.কম