মানুষ খুন করা কোন ধরনের ইসলামঃ প্রধানমন্ত্রী - Women Words

মানুষ খুন করা কোন ধরনের ইসলামঃ প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, নামাজ না পড়ে মানুষ খুন করা কোন ধরনের ইসলাম? ঈদের জামাত শুরুর আগে যারা হামলা চালায়,তারা কি আদৌ মুসলমান? প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে বৃহস্পতিবার সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ের পর সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ইসলাম কোনোভাবেই নিরপরাধ ও নিরীহ মানুষকে হত্যা মেনে নেয় না। এমনকি বিধর্মীকেও খুন করার অধিকার ইসলাম দেয়নি।
বাংলাদেশ শান্তিপ্রিয় মানুষের দেশ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন,এখানে শান্তি নিশ্চিত করতে যা কিছু করণীয়, তা-ই করবে তাঁর সরকার।  প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি দ্ব্যর্থহীনভাবে বলতে চাই, বাংলাদেশে কোনো সন্ত্রাসী ও জঙ্গির স্থান হবে না। রমজান মাসে ইবাদতের সময় যারা হত্যার মিশনে যায়, তাদের চেয়ে জঘন্য অপরাধী আর কেউ হতে পারে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
সন্তানদের কেউ যদি বিপথগামী হয়, তাহলে পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করার জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানান শেখ হাসিনা। যারা নিখোঁজ রয়েছে, তাদের কথা রেডিও, টেলিভিশনসহ সব গণমাধ্যমে জানানোর আহ্বানও জানান তিনি।
মানবাধিকার সংগঠনগুলোর সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, এসব সংগঠনের পক্ষ থেকে এত দিন নিখোঁজদের গুম হয়েছে বলে তুলে ধরে সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি করা হয়েছে। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে, এরা নিজেরাই জঙ্গিদের দলে যোগ দিয়েছে। এসব সংগঠন যদি তখনই এ বিষয়ে সঠিক তথ্য দিতে পারত, তাহলে সংকট এতটা ঘনীভূত হতো না। তড়িৎ ব্যবস্থা নেওয়া যেত।
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, বিপথগামী তরুণ-যুবকেরা যা করছে, তা ধর্মের পথ না, মানবতার পথ না, ঘৃণ্য অপরাধের পথ। তাদের এই পথ পরিহার করতেই হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের যেসব শিক্ষক শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া না শিখিয়ে জঙ্গিবাদের পথে টেনে নিচ্ছেন, তাঁদের চিহ্নিত করে তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।
জঙ্গিদের প্রতিহত করতে ইউনিয়ন, ওয়ার্ড, উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে কমিটি গঠন করে তাদের চিহ্নিত করার আহ্বান জানান তিনি। শেখ হাসিনা বলেন, কোথায় কে বিপথে যাচ্ছে, কে সন্ত্রাসের পথ বেছে নিয়েছে, তার তথ্য সংগ্রহ করুন, ব্যবস্থা নিন। প্রশাসনের পক্ষ থেকে আপনাদের সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এই জঙ্গি বা সন্ত্রাস প্রতিরোধে বাংলাদেশের সঙ্গে রয়েছে বলেও এ সময় উল্লেখ করেন তিনি।
সূত্রঃ প্রথম আলো