মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ০৭:৩৬ পূর্বাহ্ন

স্বামীর অত্যাচারে গৃহবধূর আত্মহত্যা

স্বামীর অত্যাচারে গৃহবধূর আত্মহত্যা

এক গৃহবধূকে জোর করে চাকরি করার জন্য মানসিক চাপ দেয় শ্বশুরবাড়ি। চাপ সহ্য না করতে পেরে আত্মহত্যা করেছেন তিনি।

কলকাতার গড়িয়ার সারদা পার্কের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২৭ বছরের গৃহবধূর মরদেহ। তরুণীর বাপের বাড়ির অভিযোগের ভিত্তিতে স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মার্চ মাসে মৃতা অনন্যার বিয়ে হয় গড়িয়ার বোসপাড়ার বাসিন্দা অর্ণব সাইয়ের সঙ্গে। বিয়ের পর তাঁরা ফ্ল্যাট কিনে গড়িয়ার সারদা পার্কে চলে যান। শুক্রবার রাতে ঘর থেকে উদ্ধার হয় অনন্যার মরদেহ।

ঘর থেকে উদ্ধার হয় সুইসাইড নোট। তাতে লেখা, স্বামী তাঁর ওপর চাকরি করার জন্য চাপ সৃষ্টি করেছিলেন। চাকরি না মেলায় অযোগ্য বলে রোজ অপমান করা হতো, ফলে তিনি আর সহ্য করতে পারছিলেন না। অর্ণব এমনও বলে দেন, যে যতদিন না অনন্যা চাকরি পাচ্ছেন, ততদিন তাঁদের বাচ্চা হবে না।

অনন্যার বাবা মার অভিযোগের ভিত্তিতে অর্ণবকে গ্রেপ্তার করেছে বাঁশদ্রোণী থানার পুলিশ। মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে এম.আর বাঙুর হাসপাতালে। অনন্যার পরিবারের দাবি দীর্ঘ দিন ধরে অনন্যার উপর অত্যাচার চালানো হচ্ছিল বলে অভিযোগ করে। তাঁকে চাপ দেওয়া হচ্ছিল চাকরি করার জন্য। চাকরি না করলে বাপের বাড়ি থেকে টাকা এনে দেওয়ার দাবিতেও তাঁর ওপর অত্যাচার করা হতো।

 

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © 2015 womenwords.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ