গাণিতিক হিসেবে সবচেয়ে নিখুঁত সুন্দরী তিনি

নিউজটি শেয়ার করুন

গ্রিক গণিতবিদ্যার বিচারে বিশ্বের সেরা সুন্দরী হয়েছেন মার্কিন মডেল বেলা হাদিদ। সম্প্রতি ‘গোল্ডেন রেশিও অব বিউটি ফাই স্ট্যান্ডার্ডস’-এ সবচেয়ে নিখুঁত মুখশ্রীর অধিকারী হয়েছেন এ সুপার মডেল। এ পরিমাপে সবচেয়ে বেশি ৯৪ দশমিক ৩৫ শতাংশ নম্বর পেয়েছেন ২৩ বছর বয়সী এই সুপার মডেল বেলা।

ডেইলি মেইল ও সিএনএন জানিয়েছে, বিশেষজ্ঞরা মূলত তারকাদের মুখের মাপ নিয়ে এই ফলাফল ঘোষণা করেছেন।

গবেষণাটি পরিচালনা করেছেন লন্ডনের প্রসিদ্ধ ফেসিয়াল কসমেটিকস সার্জন জুলিয়ান ডি সিলভা। তারকাদের গোল্ডেন রেশিও পরিমাপ করে তিনি বলেন, মুখমণ্ডলের বিচারে বেলা হাদিদ পরিষ্কারভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার মুখই সবচেয়ে নিখুঁত। চিবুকের জন্য তিনি সর্বোচ্চ স্কোর করেছেন, ৯৯ দশমিক ৭ শতাংশ। যা নিখুঁত থেকে মাত্র দশমিক ৩ শতাংশ দূরে। তবে চোখের অবস্থানে নিখুঁত হওয়ার দিক থেকে তিনি স্কারলেট জোহানসনের পেছনে রয়েছেন। গড়নে বিয়ন্সে অনেক এগিয়ে থাকলেও কপাল ও ঠোঁটের কারণে পিছিয়ে গেছেন। সার্বিকভাবে সবার চেয়ে এগিয়ে আছেন বেলা।

‘গোল্ডেন রেশিও’ হচ্ছে একটি প্রাচীন গ্রিক পদ্ধতি। গ্রিক পণ্ডিতেরা সৌন্দর্যের সংজ্ঞায় গাণিতিক ফর্মুলা ব্যবহার করে মুখের বিভিন্ন অংশের অনুপাত নির্ধারণ করেছেন। সেই হিসাবেই পৃথিবীর সব সুন্দরীকে টেক্কা দিয়েছেন বেলা হাদিদ। গোল্ডেন রেশিও অনুযায়ী ২৩ বছর বয়সী বেলার মুখমণ্ডল ৯৪ দশমিক ৩৫ শতাংশ নিখুঁত।

বেলা হাদিদ যুক্তরাষ্ট্রের সুপার মডেল। তার পুরো নাম ইসাবেলা খায়ের হাদিদ। তিনি ১৯৯৬ সালের ৯ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে জন্মগ্রহণ করেন।

২০১৭ সালে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ আটটি দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পদক্ষেপের সমালোচনা করে আলোচনার জন্ম দেন বেলা হাদিদ। তিনি বলেছেন, একজন মুসলিম ও একজন শরণার্থীর মেয়ে হিসেবে তিনি গর্বিত।

২৩ বছর বয়সী বেলা হাদিদ বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে জনপ্রিয় মডেলদের মধ্যে অন্যতম। ২০১৭ ফ্যাশন মৌসুমে তিনি নিউইয়র্ক ও ইউরোপে রাজত্ব করেছেন। তিনি ফিলিস্তিন-আমেরিকান আবাসন ব্যবসায়ী মোহাম্মদ হাদিদ ও ডাচ বংশোদ্ভূত মডেল ইয়োলান্দা হাদিদের ছোট মেয়ে। মোহাম্মদ হাদিদ কিশোর বয়সে যুক্তরাষ্ট্রে যান। বেলা হাদিদের বড় বোন একজন সুপারমডেল। ছোট ভাই আনোয়ারও একজন মডেল।

জরিপে দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন মার্কিন গায়িকা বিয়ন্সে। তার চেহারা ৯২ দশমিক ৪৪ শতাংশ নিখুঁত। তৃতীয় অবস্থানে আছেন অভিনেত্রী অ্যাম্বার হার্ড। তার স্কোর ৯১ দশমিক ৮৫ শতাংশ। আর ৯১ দশমিক ৮১ শতাংশ নম্বর নিয়ে পপতারকা অ্যারিয়ানা গ্র্যান্ডে।

৯১ দশমিক ৬৪ শতাংশ স্কোর নিয়ে পপতারকা টেইলর সুইফট রয়েছেন তালিকার পঞ্চম স্থানে। ব্রিটিশ মডেল কেট মস হয়েছেন ষষ্ঠ। তার স্কোর ৯১ দশমিক ০৫ শতাংশ।

গোল্ডেন রেশিওর হিসাবে হলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী স্কারলেট জোহানসন রয়েছেন সপ্তম স্থানে। তার স্কোর ৯০ দশমিক ৯১ শতাংশ। আরেক অভিনেত্রী নাটালি পোর্টম্যান ৯০ দশমিক ৫১ শতাংশ স্কোর নিয়ে হয়েছেন অষ্টম।

সংগীতশিল্পী কেটি পেরি ৯০ দশমিক ০৮ শতাংশ স্কোর নিয়ে নবম স্থানে রয়েছেন। মডেল-অভিনেত্রী কারা ডেলাভিগনে রয়েছেন ১০ নম্বরে। তার স্কোর ৮৯ দশমিক ৯৯ শতাংশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *