সোমবার, ২২ অক্টোবর ২০১৮, ১১:৪৪ পূর্বাহ্ন

‘আমি কখনো ভয় পাই না। এখনো পাচ্ছি না।’

‘আমি কখনো ভয় পাই না। এখনো পাচ্ছি না।’

প্রতিতযশা লেখক অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেছেন, ‘আমি কখনো ভয় পাই না। এখনো পাচ্ছি না। আমি মুক্তমঞ্চে দাঁড়িয়ে আবারও কথা বলব।’ দেশকে ভালোবাসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশটা অনেক সুন্দর। তোমরা দেশটাকে ভালোবাসো। দেখবে দেশও তোমাদের ভালোবাসবে।’

আজ বুধবার সিলেটের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হওয়ার আগে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উপস্থিত সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি ।

শাহাজালালাল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আক্রান্ত হওয়ার পর চিকিৎসার জন্য তাঁকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) ভর্তি  করা হয়। আজ সকাল সাড়ে ১০টায় তাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়।

এ তথ্য নিশ্চিত করে আন্তঃবাহিনী গণসংযোগ পরিদফতরের সহকারী পরিচালক রেজাউল করিম শাম্মী জানান, ড. জাফর ইকবাল এখন সম্পূর্ণ সুস্থ। তবে আগামী সাতদিন তাকে পূর্ণ বিশ্রামে থাকতে বলা হয়েছে।

অধ্যাপক জাফর ইকবালের ব্যক্তিগত সহকারী জয়নাল আবেদীন জানান, আজ বুধবার দুপুর ১২টায় নভো-এয়ারের একটি ফ্লাইটে সিলেট আসবেন। দুপুর পৌনে ১টায় তার সিলেটের ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছার কথা রয়েছে। জাফর ইকবাল স্যারের সঙ্গে তার স্ত্রী ড. ইয়াসমিন হকসহ পরিবারের সদস্যরা রয়েছেন। বিমানবন্দর থেকে জাফর ইকবাল সরাসরি শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ দেবেন।

এদিকে ক্যাম্পাস সূত্রে জানা গেছে, জাফর ইকবালের ফিরে আসা নিয়ে উচ্ছ্বাসিত ক্যাম্পাসের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। জাফর ইকবালকে ক্যম্পাসের ‘ব্র্যান্ডম্যান’ উল্লেখ করে আজ তারা তাকে বরণ করে নিতে পুরোপুরি প্রস্তুত।

বিকেল ৪টায় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) ক্যাম্পাসের মুক্তমঞ্চে আসবেন তিনি। যেখানে গত ৩ মার্চ হামলার শিকার হন তিনি ওই স্থানে দাঁড়িয়েই শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন। শিক্ষার্থীদের নিয়ে আবারও মেতে উঠবেন জাফর ইকবাল এমন প্রত্যাশা শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ইশাফকুল হোসেন জানান, ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল এখন পুরোপুরি সুস্থ। চিকিৎসা ছাড়পত্র পাওয়ার পর আজ দুপুরে তিনি সিলেট পৌঁছাবেন। তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হবে।

গত ৩ মার্চ (শনিবার) বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে সিলেট বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে পেছন থেকে অধ্যাপক জাফর ইকবালের মাথায় ছুরিকাঘাত করেন আনুমানিক ২৫ বছর বয়সী এক যুবক। পরে তাকে শিক্ষার্থীরা ধরে পিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন।

অধ্যাপক জাফর ইকবালকে উদ্ধার করে প্রথমে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তারপর রাতেই হেলিকপ্টারযোগে ঢাকায় আনা হয়। এরপর ৩ মার্চ রাত থেকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছিলেন ড. জাফর ইকবাল। ওইদিন বিকালে শাবিপ্রবি ক্যাম্পাসে তিনি হামলার শিকার হন।

এদিকে এ ঘটনায় ফয়জুল, তার ভাই, বাবা ও মামা পুলিশ রিমান্ডে রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন







© All rights reserved © 2015 womenwords.com
পোর্টাল বাস্তবায়নে : বিডি আইটি ফ্যাক্টরী লিঃ