পিশাচ পুরুষ

আশিক রাহমান ওকে যখন আমি প্রথম দেখি ও তখন সুইট সিক্সটিন। কেবল স্কুল ড্রেস ছেড়ে সদ্য কিশোরী থেকে যুবতী হওয়ার পথে। মেঘের মত ঘন চুল গুলো মেলে কপালে সানগ্লাস তুলে হাই হিলে হেঁটে চলা প্রচন্ড আত্মবিশ্বাসী একটা মেয়ে। ওর আড় চোখে তাকানো, রহস্যময়ী মুচকি হাসি, যেন খোলস ছেড়ে বেড়িয়ে আসা সাত

যে প্রেম ছেলেরা করলে বয়সের ভুল, মেয়েদের বেলা তা পাপ হয় কি করে!

আশিক রাহমান ছেলে তুমি চিৎকার করে বলতে পারো মেয়েটা তোমায় ধোঁকা দিয়েছে, ছেলে তুমি মাঝ রাতে মদের বোতল হাতে পড়ে থাকলেও লোকে বলবে, আহারে কত ভালো ছিলো, একটা মেয়ের কারনে নষ্ট হয়ে গেলো! ঠিক তোমার মত করে মেয়েটা বলতে পারবেনা, ছেলেটা ধোঁকাবাজ ছিলো। কারন লোকে বলবে, তার চরিত্র খারাপ ছিলো বলেই ছেলে

পৃথিবীর সব চেয়ে ভয়ংকর ক্রিমিনাল হচ্ছে আত্মহননকারী

আশিক রাহমান আত্মহত্যা নিয়ে একটা ভয়ংকর সত্য উপলব্দি করলাম। রানা প্লাজার ধ্বংসস্তূপে আটকা পড়া এক নারী আকুতি করে বলেছিলেন, আমায় এমন একটা কিছু দিন যাতে আমি আমার হাত কেটে শরীরটা মুক্ত করে নিতে পারি। মৃত্যুর চেয়ে ভয়ংকর কিছু থাকলে সে বাঁচতে চাইতো না। বরং তাকে জলদি মেরে যন্ত্রনা কমিয়ে ফেলার আকুতি জানাতেন। প্রচন্ড

ভালোবাসা পানির মত শান্ত হয়, দায়িত্ববোধ থাকতে হয়

আশিক রাহমান যে ছেলে তোমার বুকে কয়টা তিল আছে সে খোঁজ রাখে সেই ছেলেকে কখনো জিজ্ঞেস করেছ তোমার প্রিয় রঙ কি সেটা কি সে জানে? যে ছেলেটা দেখা হলেই রিকশার হুড তুলে দেয় সেই ছেলে তোমার হাত ধরে কখনো বলেছে তোমার পড়া শোনার খবর কি? যে ছেলেটা খুব তৎপর হয়ে তোমার জন্য লিটনের

নারী চায় ভালোবাসা, সম্মান

আশিক রাহমান তোমার মা, বোন বা বউয়ের উপর চিৎকার করে ওঠার কারণ তোমার ডিপ্রেশন বা কাজের চাপ না। চিৎকার করার কারণ তোমার বিশ্বাস। তুমি বিশ্বাস করো তারা তোমার উপর ডিপেন্ড করে আছে। তুমি পুরুষ তোমার সহ্য ক্ষমতা অসীম। বদমেজাজী বসের এক গাদা অবান্তর প্রশ্নের উত্তর তুমি হাসতে হাসতে হাসতে দিতে পারো।