You are here
নীড়পাতা > প্রতিবেদন > সাগর-রুনি হত্যা: তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল ২১ মার্চ

সাগর-রুনি হত্যা: তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল ২১ মার্চ

সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনি হত্যা মামলায় আগামী ২১ মার্চ তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য করেছেন আদালত। মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দিতে ব্যর্থ হওয়ায় তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্ত  কর্মকর্তা এএসপি মহিউদ্দিন আহমেদকে তলব করেছেন আদালত।

কেন এখনও তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়া গেল না, তদন্ত কর্মকর্তাকে তা আদালতে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা করতে হবে বলে আজ বুধবার আদেশ দিয়েছেন ঢাকার মহানগর হাকিম মাজহারুল ইসলাম।

ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক আলতাফ হোসেন জানান, মহানগর হাকিম মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর জ্যেষ্ঠ পুলিশ সুপার ওয়ারেস আলী মিয়া সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যা মামলার কোনও অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল না করায় বিচারক আগামী ২১ মার্চ তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, মাছরাঙা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সারওয়ার ও এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মেহেরুন রুনি দম্পতি ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর পশ্চিম রাজাবাজারের বাসায় খুন হন। পরদিন রুনির ভাই নওশের আলম রোমান বাদী হয়ে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

বাবা-মায়ের লাশের সঙ্গে শুধু তাদের শিশু সন্তান মাহির সরওয়ার মেঘকেই পাওয়া গিয়েছিল। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, অপেশাদার খুনিরা ধারাল অস্ত্রের আঘাতে দুজনকে হত্যা করেছে।

তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন বলেছিলেন, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে খুনিদের গ্রেপ্তার করা হবে। মূল আসামিরা গ্রেপ্তার না হওয়ায় তীব্র সমালোচনার মুখে পড়তে হয় তাকে।

এ মামলায় গ্রেপ্তার ছয়জন বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন। এরা হলেন- সাগর-রুনি যে বাড়িতে থাকতেন ওই বাড়ির নিরাপত্তা রক্ষী এনাম আহমেদ ওরফে হুমায়ুন কবির, রফিকুল ইসলাম, বকুল মিয়া, মিন্টু ওরফে বারগিরা মিন্টু ওরফে মাসুম মিন্টু, কামরুল হাসান অরুণ ও আবু সাঈদ। অন‌্যদিকে তানভীর রহমান ও ওই বাড়ির দারোয়ান পলাশ রুদ্র পাল সুপ্রিম কোর্টের দেওয়া জামিনে রয়েছে।

গ্রেপ্তার এই আসামিদের একাধিকবার রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলেও কেউ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেননি।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন, বিডিনিউজ২৪

Similar Articles

Leave a Reply