You are here
নীড়পাতা > সাম্প্রতিক > সন্তানকে কোলে দিতেই সাড়া দিলেন কোমায় আচ্ছন্ন মা

সন্তানকে কোলে দিতেই সাড়া দিলেন কোমায় আচ্ছন্ন মা

নাড়ীর টান বোধহয় একেই বলে । সন্তানকে কোলে দিতেই কোমা থেকে বেরিয়ে এলেন মা। অথচ আর্জেন্টিনার এই নারীকে এক প্রকার জবাবই দিয়ে দিয়েছিলেন ডাক্তাররা। পরিবারও ধরে নিয়েছিল, কোমাতেই বাকি দিনগুলো কাটবে মেয়ের।

এমেলিয়া বান্নান নামে ওই নারী পুলিশে চাকরি করতেন। তিনি তখন পাঁচমাসের সন্তানসম্ভবা। একদিন স্বামী ও বন্ধুদের সঙ্গে গাড়িতে চেপে বেড়াতে যাচ্ছিলেন। রাস্তায় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে তাঁদের গাড়ি। এমেলিয়া সব থেকে বেশি জখম হন। মাথা ফেটে যায় তাঁর। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে ডাক্তাররা জানান, চোট খুব গভীর লাগেনি ঠিকই। কিন্তু মাথায় রক্ত জমাট বেঁধে গিয়েছে। এরপরই কোমায় চলে যান এমেলিয়া। এত বড় দুর্ঘটনা ঘটলেও এমেলিয়ার গর্ভস্থ সন্তান সম্পূর্ণ সুস্থ ছিল।

এরপর সবটাই যেন গল্পের মত। কোমায় থাকা অবস্থাতেই ২০১৬ সালের ২৫ ডিসেম্বর এক পুত্রসন্তানের জন্ম দেন তিনি। পরিবার সেই ছেলের নাম রাখে স্যান্টিনো। মা কোমায় থাকায়, মাসির কাছে রাখা হয় ছোট্ট স্যান্টিনোকে। তবে নিয়ম করে মায়ের কাছে আনা হত তাকে। সন্তানের টানেই একদিন সাড়া দেবেন এমেলিয়া, এমনটাই বিশ্বাস ছিল তাঁর পরিবারের। তিন মাস পর হল তেমনটাই। এমেলিয়ার ভাই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন।

যেখানে দেখা গিয়েছে, পুঁচকে স্যান্টিনোকে আদর করতে চেষ্টা করছেন তিনি। ধীরে ধীরে সাড়া দিচ্ছেন এমেলিয়া। হ্যাঁ বা না-তে উত্তরও দিচ্ছেন। মায়ের ধীরে ধীরে সুস্থ হওয়ার জন্য ছোট্ট স্যান্টিনোকেই ক্রেডিট দিচ্ছে তার পরিবার। এমন ম্যাজিকে অবাক বনে গিয়েছেন ডাক্তাররাও। এবার আস্তে আস্তে স্বাভাবিক হয়ে উঠবেন এমেলিয়া, মনে করছেন তারা। সেরে উঠুন ছোট্ট স্যান্টিনোর মা। মায়ের আদরে বেড়ে উঠুক খুদেটি। চাইছেন আপামর বিশ্বের মানুষ।

 

Similar Articles

Leave a Reply