You are here
নীড়পাতা > প্রতিবেদন > যৌন নিপীড়নের অভিযোগ, অস্কার হারাচ্ছেন হলিউড প্রযোজক উইনস্টেন?

যৌন নিপীড়নের অভিযোগ, অস্কার হারাচ্ছেন হলিউড প্রযোজক উইনস্টেন?

Your ads will be inserted here by

Easy Plugin for AdSense.

Please go to the plugin admin page to
Paste your ad code OR
Suppress this ad slot.

মার্কিন চলচ্চিত্র প্রযোজক হার্ভে উইনস্টেইনের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তুলেছেন হলিউডের জনপ্রিয় তারকা অ্যাঞ্জেলিনা জোলি, গিনেথ প্যালট্রো, রোজ ম্যাকগোয়ান, কারা ডেলেভিনে ও লিয়া সিডক্স। ফলে তার ভবিষ্যত নির্ধারণে বৈঠকে বসতে যাচ্ছে অস্কার পুরষ্কার প্রদানকারী সংস্থা দ্য ইউএস অ্যাকাডেমী।

ইতোমধ্যেই মিরাম্যাক্স এবং উইনস্টেইন কোম্পানী ৮১টি অস্কার পুরষ্কার পেয়েছে। কিন্তু যৌন নিপীড়নের অভিযোগের প্রেক্ষাপটে এ নিয়ে নতুন করে সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে বলে বুধবার জানায় সংস্থাটি।

গত তিন দশকে অন্তত আটজন নারীকে হার্ভের ক্ষমতার সামনে আপস করতে হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। সবই হয়েছে কোনও না কোনও হোটেলে। অভিনেত্রী রোজ ম্যাকগোয়ান জানান, কাজের খাতিরে হার্ভের সঙ্গে দেখা করতে হয়েছিল তাকে। তখন হার্ভে ক্যারিয়ার দাঁড় করিয়ে দেয়ার টোপ ফেলেন। ১৯৯৭ সালে ২৩ বছর বয়সে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতিতে পড়েন তিনি।

২০১৫ সালে ট্রাইবেকা চলচ্চিত্র উৎসবে ওয়েইনস্টাইন জড়িয়ে ধরেছিলেন বলে অভিযোগ তোলেন ইতালিয়ান এক মডেল। কিন্তু তখন ওয়েইনস্টাইনের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি এবং এ নিয়ে নিজেদের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরেছেন আইনজীবীরা।

তাঁরা বলছেন, উইনস্টেনের বিরুদ্ধে অভিযোগের যথেষ্ট প্রমাণাদি তাঁরা পাননি, ফলে তাঁকে অপরাধীও বলা সম্ভব হয়নি। তবে তারা এটাও বলছেন যে অস্কারজয়ী এই প্রযোজকের “নারীদের সঙ্গে অশালীন ব্যবহারের উদাহরণ রয়েছে”।

নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকায় এক লিখিত বিবৃতিতে হার্ভে উইনস্টেনের বিরুদ্ধে নিজেদের অভিযোগের কথা জানিয়েছেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও গিনেথ প্যালট্রো।

১৯৯৬ সালে মুক্তি পাওয়া ‘এমা’ সিনেমার প্রযোজক ছিলেন হার্ভে উইনস্টেইন। ছবির প্রধান চরিত্র জেন অস্টেনের ভূমিকায় কাজ করেন গিনেথ প্যালট্রো।প্যালট্রো তাঁর দেওয়া বিবৃতিতে জানান, একবার নিজের হোটেল রুমে তাঁকে ডেকে পাঠিয়েছিলেন হার্ভে উইনস্টেন। সে সময় তাঁর দেহে আপত্তিকরভাবে স্পর্শ করেন উইনস্টেন এবং প্যালট্রোকে কুপ্রস্তাব দেন।গিনেথ প্যালট্রো তখন হলিউডের কম বয়সী এক উঠতি তারকা।

“আমার বয়স তখন খুব বেশি নয়। এরপর আবার হার্ভে উইনস্টেইনের ছবিতেই চুক্তিবদ্ধ হয়েছি, সেদিনের ঘটনায় আমি খুব ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। আমার বয়ফ্রেন্ড ব্র্যাড পিটকে এ কথা বলেছিলাম, সে তখন প্রযোজকের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছিল। আমার মনে হচ্ছিল মি: উইনেস্টেন আমাকে চুক্তি থেকে বাদ দিয়ে দেবে”।

অন্যদিকে অ্যাঞ্জেলিনা জোলি জানান, ১৯৯৮ সালে ‘হার্ট’ ছবিটির মুক্তির সময় হার্ভে উইনস্টেন তাঁকে হোটেল রুমে ডেকেছিলেন।

“‘হার্ভে উইনস্টেইনের সঙ্গে কাজ করে আমার খুব খারাপ অভিজ্ঞতা হয়েছে। আর এ কারণে আমি এই প্রযোজকের সঙ্গে পরে আর কোনো কাজ করিনি, আমার অন্য নারী সহকর্মীদেরও এই বিষয়ে সতর্ক করে দিয়েছি”।

“নারীদের প্রতি এ ধরনের আচরণ মেনে নেওয়া যায় না, তা আপনি যেকোনো দেশে যে কোনো অবস্থানেই থাকুন না কেন” বলেন জোলি।

৬৫ বছর বয়সী হার্ভে উইনস্টেন বলছেন তার বিরুদ্ধে আনা বেশিরভাগ অভিযোগই মিথ্যা।

হার্ভে ওয়েইনস্টাইন হলিউডের সবচেয়ে ক্ষমতাধর মানুষগুলোর একজন। ১৯৭৯ সালে ভাই ববকে নিয়ে তিনি গড়ে তোলেন স্বাধীন চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান মিরাম্যাক্স। ২০০৫ সালে তারা এটি বিক্রি করে প্রতিষ্ঠা করেন দ্য ওয়েইনস্টাইন কোম্পানি।

তার প্রযোজিত অস্কারজয়ী ছবির তালিকায় আছে ‘শেক্সপিয়র ইন লাভ’, ‘শিকাগো’, “দ্য কিং’স স্পিচ”, ‘দ্য আর্টিস্ট’ প্রভৃতি। ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটদের মূল দাতাদের একজন ছিলেন তিনি।

ব্যক্তিজীবনে হার্ভে পাঁচ সন্তানের বাবা। এর মধ্যে দু’জনের মা জিওর্জিওনা রোজ চ্যাপম্যান। ২০০৭ সালে এই ফ্যাশন ডিজাইনারকে বিয়ে করেন তিনি।

এদিকে, দ্য উইনস্টেইন কোম্পানির ডিরেক্টর বলেছেন যে, নতুন তথ্যের ভিত্তিতে তারা উইনস্টেইনকে অবিলম্বে চাকরিচ্যুত করেছে। গত রোবরাব রবার্ট উইনস্টেইন, ল্যান্স ম্যারোব, রিচার্ড কোয়েনিগস বার্গ ও তারাক বিন আম্মার এক বিবৃতি জারি করে। বিষয়টি উইনস্টেইনকেও জানানো হয়েছে।

 

Similar Articles

Leave a Reply