You are here
নীড়পাতা > সংবাদ > বাংলাদেশ > বর্ষবরণে যৌন হয়রানি : আবারও পিছাল তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল

বর্ষবরণে যৌন হয়রানি : আবারও পিছাল তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল

বাংলা বর্ষবরণে যৌন হয়রানির মামলার পুনঃতদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের সময় আরেক দফা পেছানো হলো। তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে পরবর্তী তারিখ আগামী ২২ সেপ্টেম্বর নির্ধারণ করেছেন আদালত। রবিবার ঢাকা মহানগর হাকিম সত্যপ্রদ শিকদার এ দিন ধার্য করেন।

আজ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর প্রতিবেদন দাখিল করার কথা ছিল। পূর্ব ধার্যদিনে পুলিশ প্রতিবেদন দাখিলে ব্যর্থ হওয়ায় আদালত প্রতিবেদন দাখিলে নতুন তারিখ ধার্য করলেন। এ নিয়ে বেশ কয়েকবার এই মামলার পুনঃতদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সময় পেল পুলিশ।

২০১৫ সালের ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) এলাকায় নারীরা যৌন হয়রানির শিকার হন। ওই ঘটনায় শাহবাগ থানার এসআই আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে একটি মামলা করেন।

এ ছাড়া ওই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও ভিডিও ফুটেজ বিশ্লেষণ করে আট লাঞ্ছনাকারীকে শনাক্তের পর গণমাধ্যমে ছবি প্রকাশ করে পুলিশ। পরে তাদের ধরিয়ে দেওয়ার জন্য লাখ টাকা পুরস্কারও ঘোষণা করা হয়।

এরপর ২০১৫ সালের ৯ ডিসেম্বর এই মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন ডিবি পুলিশের এসআই দীপক কুমার দাস। তিনি প্রতিবেদনে আসামি খুঁজে না পাওয়ার কথা জানান। প্রতিবেদনে বলা হয়, বর্ষবরণে যৌন হয়রানির ঘটনা গোপন ও প্রকাশ্য তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। তবে ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে চিহ্নিত আট যৌন হয়রানিকারীকে গ্রেপ্তার করা যায়নি।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, মামলার তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে প্রচণ্ড ভিড়ের মধ্যে ৮-১০ জন দুষ্কৃতকারী কতিপয় নারীর শাড়ি ধরে টান দেয়। তদন্তে সাক্ষ্যপ্রমাণ ও ঘটনার পারিপার্শ্বিকতায় মামলার অভিযোগ প্রাথমিকভাবে সত্য প্রমাণিত হয়।

ওই প্রতিবেদন গ্রহণ না করে মামলাটির পুনঃতদন্তের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক জয়শ্রী সমাদ্দার।

এরপর বেশ কয়েকবার এই মামলার পুনঃতদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সময় পেল পুলিশ। কিন্তু বরাবরই ধার্যদিনে আদালতে মামলাটির পুনঃতদন্ত প্রতিবেদন উপস্থাপন করতে পারেনি। এরই ধারাবাহিকতায় আজ আবার মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলে ২২ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত। সূত্র : কালের কণ্ঠ

Similar Articles

Leave a Reply