You are here
নীড়পাতা > প্রতিবেদন > নাসার বর্ষসেরা আবিষ্কারকের পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশি মাহমুদা

নাসার বর্ষসেরা আবিষ্কারকের পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশি মাহমুদা

বাংলাদেশি তরুণী পেলেন নাসার ‌‌ইনোভেটর অব দ্য ইয়ার’ পুরস্কার। যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় মহাকাশ সংস্থা ন্যাশনাল অ্যারোনটিক্স অ্যান্ড স্পেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (নাসা) ‌‌ইনোভেটর অব দ্য ইয়ার’ পুরস্কার পেয়েছেন বাংলাদেশি মাহমুদা সুলতানা।

সংস্থাটির কর্মকর্তারা জানান, তিনি নাসায় কর্মরত সবচেয়ে কনিষ্ঠ নারী। এর আগে ২০১৭ সালের ‌গডার্ড এফওয়াইসেভেন্টিন আইআরএডি ইনোভেটর অব দ্য ইয়ার’ মনোনীত হয়েছিলেন মাহমুদা।

গ্রাফিন, যা এক ধরনের পারমাণবিক স্কেল, সেটি নিয়ে সৃজনশীলতার স্বাক্ষর রাখায় এই পুরস্কারের জন্য তাকে মনোনীত করা হয়েছিল। মেরিল্যান্ডের গ্রিনবেল্টে নাসা গডার্ডের অফিস থেকে বার্ষিক এই পুরস্কার প্রদান করা হয়। নাসা গডার্ডের প্রধান কর্মকর্তা পিটার হিউজেস বলেন, এ বছর মাহমুদা সুলতানার মতো মেধাবীকে ‌ইনভেন্টর অব দ্য ইয়ার-এ মনোনীত করতে পেরে আমরা গর্বিত। তিনি আরো বলেন, মাহমুদা নাসার যে কয়েকটি কাজে অংশ নিয়েছেন, তার সবকটিতেই অসাধারণ সৃজনশীলতার পরিচয় দিয়েছেন। আমরা আশা করছি, চমৎকার নৈপুণ্যের কারণে শিগগিরই মাহমুদা নাসার একজন ন্যানো-টেকনোলজি বিশেষজ্ঞ হয়ে উঠবেন।

মাহমুদা তাঁর প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘যখন আমি প্রথম নাসা গডার্ডে আসি তখন গ্রাফিন নিয়ে গবেষণা প্রাথমিক পর্যায়ে ছিল। আমরা প্রতিদিনই গ্রাফিনের ব্যবহার করে থাকি। তবে মহাকাশেও কীভাবে গ্রাফিনের ব্যবহার করা যায়, আমি সেই চেষ্টাই করেছি।’ তার গবেষণার পরিধি আরো বাড়াতে চান বলেও জানিয়েছেন মাহমুদা।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশি তরুণী মাহমুদা সুলতানা যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার সাউদার্ন ইউনিভার্সিটির কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে উচ্চতর শিক্ষা নেন। এরপর তিনি ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি) থেকে কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ওপর পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন।

সূত্র: নাসা

 

Similar Articles

Leave a Reply