You are here
নীড়পাতা > সংবাদ > বাংলাদেশ > জোড়া খুন মামলায় ১০ ডাকাতের মৃত্যুদণ্ড

জোড়া খুন মামলায় ১০ ডাকাতের মৃত্যুদণ্ড

রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলায় জোড়া খুনের মামলায় ১০ ডাকাতকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার এ রায় ঘোষণা করেন রংপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আবদুল মালেক জানান, রায় ঘোষণার সময় তিন আসামি চান্দু মৃধা, আবুল বাশার ও সোবহান সিকদার আদালতে উপস্থিত ছিলেন। বাকিরা পলাতক। তারা হলেন মানিক, অহিদুল, নজরুল ইসলাম, আবুল হোসেন, শাহীন, বশির ও শহিদুল ইসলাম।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৬ সালের ২৮ মার্চ রাতে ঠাকুরগাঁও থেকে ২০২ বস্তা চালভর্তি একটি ট্রাক রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলার বারাতি সেতুর কাছে আসে। সেখানে একটি খালি ট্রাক দিয়ে চালের ট্রাকটি থামায় ডাকাতরা। চালের ট্রাকের চালক পরেশ চন্দ্র (৪০) ও তাঁর সহকারী সন্তোষ কুমারকে (২৮) হাত-পা বেঁধে খালি ট্রাকে তোলে তারা। এরপর ডাকাতরা উভয় ট্রাক নিয়ে পালিয়ে যায়। পথে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর এলাকায় টহল পুলিশের ধাওয়া খায়। তখন  বেপরোয়া গতিতে চালাতে গিয়ে তারা একটি ভ্যানগাড়িকে চাপা দেয়।  এ ঘটনায় ভ্যানের চালক মনোরঞ্জন আহত হন। ট্রাকের চালক ও সহকারীকে চলন্ত গাড়ি থেকে ফেলে দেয় ডাকাত দল। আহত অবস্থায় উদ্ধার করে তিনজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই রাতেই ট্রাকচালক পরেশ চন্দ্র ও ভ্যানচালক মনোরঞ্জন মারা যান।

এ ঘটনায় চালের মালিক ঠাকুরগাঁওয়ের রুহিয়া এলাকার হারাধন চন্দ্র ও ট্রাকচালকের সহকারী সন্তোষ কুমার বাদী হয়ে বদরগঞ্জ থানায় পৃথক দুটি মামলা করেন। মামলা দুটির তদন্ত শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ।

সূত্রঃ প্রথম আলো

 

Similar Articles

Leave a Reply