You are here
নীড়পাতা > সাম্প্রতিক > চলন্ত অটো থেকে ছুড়ে শিশুকে হত্যার পর মাকে গণধর্ষণ

চলন্ত অটো থেকে ছুড়ে শিশুকে হত্যার পর মাকে গণধর্ষণ

চলন্ত অটোরিকশায় মায়ের কোলে ছিল আট মাসের শিশু। সেই শিশুকে ছুড়ে ফেলে দিয়ে মা-কে ধর্ষণ করেছে তিন নরপিশাচ। এ ঘটনায় মাথায় আঘাত পেয়ে মারা গেছে শিশুটি।

গত ২৯ মে ভারতের হরিয়ানা রাজ্যের গুরুগ্রামে ভয়ংকর এই ঘটনাটি ঘটেছে। গত ২৯ মে মধ্যরাতে ঘটনাটি ঘটলেও গণমাধ্যমে প্রকাশ পায় গতকাল। ঘটনার পরদিন অর্থাৎ ৩০ মে ওই নারীর অভিযোগ পেয়ে পুলিশ হত্যা ও উৎপীড়নের মামলা করেছে।  

ওই মা জানান, তারা আমার আট মাসের কন্যাকে রাস্তায় ছুড়ে ফেলে দেয়। আমার অনেক কাকুতি-মিনতিও তাদের মন গলাতে পারেনি। পরে তারা আমাকে ধর্ষণ করে।

পুলিশ জানায়, প্রতিবেশীর সঙ্গে ঝগড়ার জের ধরে ওই নারী শিশুকন্যাকে নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন। তার স্বামী কাজের জন্য বাড়ির বাইরে ছিলেন। তাই রাতটি মা-বাবার বাসায় কাটানোর সিদ্ধান্ত নেন।ওই নারী ইন্ডাস্ট্রিয়াল মডেল টাউনশিপ (আইএমটি) মানেসরের কাছাকাছি একটি গ্রামে থাকেন। সেখান থেকে প্রথমে চালককে অনুরোধ করে একটি ট্রাকে চেপে বসেন। কিন্তু ট্রাকচালক মদ্যপ থাকায় এবং তাকে বিরক্ত করায় খেরকি দৌলা টোল প্লাজায় এসে তিনি নেমে পড়েন। পরে ২৩ বছর বয়সী ওই নারীকে জোর করে অটোতে তোলা হয়।

অভিযোগে তিনি পুলিশকে বলেন, অটোতে তোলার পরই তারা আমাকে নিপীড়ন শুরু করে। আমি তাদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করি এবং চিৎকার করতে থাকি। আমার মেয়ে কান্না শুরু করে। তখন তারা আমার মেয়েকে আমার কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়ে রাস্তায় ছুড়ে মারে। আমি অনেক কাকুতি-মিনতি করি। কিন্তু তারা থামেনি। আমাকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া, কালের কন্ঠ

 

Similar Articles

Leave a Reply