You are here
নীড়পাতা > প্রতিবেদন > কিশোরীর গবেষণাকর্ম মহাকাশে পাঠাল নাসা!

কিশোরীর গবেষণাকর্ম মহাকাশে পাঠাল নাসা!

মহাজগত নিয়ে দারুণ আগ্রহ আলিয়া আল মানসুরির। সে সংযুক্ত আরব আমিরাতের ১৫ বছরের  এক কিশোরী। প্রাণের জন্য মহাশূন্য কতটা ক্ষতিকর হয়ে ওঠে, সে বিষয়ে আলিয়ার রিসার্চ প্রপোজাল রীতিমতো পুরস্কার বাগিয়ে নিয়েছে। এর মাধ্যমে মহাকাশে তেজষ্ক্রিয় রশ্মির বিকিরণের হাত থেকে মহাকাশচারীদের রক্ষার গবেষণা আরো এগিয়ে যাবে। শুধু তাই নয়, এ নিয়ে তার প্রজেক্টটি ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে ওড়ানো হয় মহাকাশে।

নাসার কাছ থেকে কোনো অ্যাওয়ার্ড পাওয়ার ক্ষেত্রে আলিয়া সর্বকনিষ্ঠ আমিরাতি গবেষক। নাসার ‘জিনস ইন স্পেস’ প্রতিযোগিতায় সেও নিজের গবেষণা প্রজেক্ট পাঠায়। আর ওটি সেরা বলে গণ্য হয়। তার গবেষণাকর্মটি পাঠানো হয়েছে মহাকাশে। তার কর্ম নিয়ে গবেষণামূলক উড্ডয়নটি নিজের চোখে দেখেছে মেয়েটি। এই বয়সে এমন বিস্ময়কর অভিজ্ঞতা লাভ করলো আলিয়া।

তার গবেষণায় মহাকাশের তেজষ্ক্রিয়তা থেকে মানবদেহকে রক্ষার বিষয় আলোচিত হয়েছে। আলিয়ার স্বপ্ন সে আমিরাতের প্রথম মহাকাশচারী হবে। এটা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, মঙ্গলের বুকে সংযুক্তি আরব আমিরাতের পতাকা হয়তো তার হাতেই উড়বে।

এই অনবদ্য কাজের প্রতিদান পেয়ে আপ্লুত আলিয়া জানায়, আমার দেশের জন্য সম্মান বয়ে আনতে পেরেছি আমি।
সূত্র : এমিরেটস , কালের কন্ঠ

 

Similar Articles

Leave a Reply