You are here
নীড়পাতা > সংবাদ > আন্তর্জাতিক > কাবুল থেকে অপহৃত কলকাতার মেয়ে জুডিথ

কাবুল থেকে অপহৃত কলকাতার মেয়ে জুডিথ

কলকাতার মেয়ে জুডিথ ডিসুজাকে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কাবুলের রাস্তা থেকে অপহরণ করেছে অজ্ঞাতপরিচয় দুস্কৃতীরা। কোনও গোষ্ঠী বা জঙ্গি সংগঠন এখনও অপহরণের দায় স্বীকার করেনি। যদিও আপাতত সন্দেহের তীর তালেবানদের দিকে।

জুডিথের বাড়ি কলকাতার সিআইটি রোডে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক বন্ধুর বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন জুডিথ। নিজের ফ্ল্যাটে ফেরার পথে শহরের মাঝামাঝি তৈমানি নামের একটি আবাসিক এলাকায় একটি গাড়ি জুডিথের গাড়ির পথ রোধ করে। এরপর জুডিথ ও তাঁর গাড়িচালককে নামিয়ে জোর করে তুলে নেওয়া হয় ওই গাড়িতে। কিছু দূর গিয়ে গাড়িচালককে গাড়ি থেকে ফেলে দিয়ে অপহরণকারীরা জুডিথকে নিয়ে পালায়।’’

জুডিথের কাজ ছিল মূলত নারী ও শিশুদের অধিকার নিয়ে। আফগানিস্তানের বিস্তীর্ণ এলাকায় তালিবানদের শক্তি এখনও অটুট। মোল্লা হিবাতুল্লা এই মুহূর্তে তালিবান সর্বাধিনায়ক। তালিবানের প্রাক্তন প্রধান মোল্লা ওমর এবং জালালুদ্দিন হাক্কানির ছেলেরা তাঁর ডেপুটি। তাদের কট্টরপন্থী ভাবধারায় মেয়েদের অধিকার ও স্বাধীনতার স্থান নেই। সেই জন্যই কি জুডিথের মতো সমাজসেবীর উপরে তাদের দৃষ্টি পড়ল? সন্দেহটা উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে না। আবার সাউথ ব্লকের কর্তাদের একাংশের মতে, আফগানিস্তানের উন্নয়নে ভারতের ভূমিকা এবং দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে আঘাত হানার লক্ষ্যেই এ ঘটনা ঘটানো হয়ে থাকতে পারে।

জুডিথ যে সংস্থাটির হয়ে কাজ করতে কাবুলে গিয়েছিলেন, তার নাম আগা খান ফাউন্ডেশন। সেটি একটি আন্তর্জাতিক এনজিও— আগা খান ডেভেলপমেন্ট নেটওয়ার্ক (একেডিএন)-এর শাখা সংস্থা। একেডিএন-এর চেয়ারম্যান আগা খান বংশানুক্রমিক ভাবে ইমাম হন ১৯৫৭ সালে। হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইসলামিক ইতিহাসের এই স্নাতক বরাবরই সহিষ্ণুতা এবং সহমর্মিতার প্রচার করে এসেছেন। আফগানিস্তানে তাঁর সংস্থার সঙ্গে স্বার্থের সংঘাত রয়েছে, এমন গোষ্ঠীর সংখ্যাও কম নয়। ফলে এই অপহরণ আগা খানকে সবক শেখানোর জন্য কিনা, সেটাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সূত্র : আনন্দবাজার

Similar Articles

Leave a Reply